হাজীগঞ্জে রাতের আঁধারে গৃহবধূকে ধর্ষণ

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে রাতের আঁধারে এক গৃহবধূকে ধর্ষনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্তের বিরুদ্ধে গৃহবধূ নিজেই বাদী হয়ে হাজীগঞ্জ থানায় ও চাঁদপুর পুলিশ সুপার কার্যালয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগের আলোকে জানা যায়, উপজেলার ৬নং বড়কূল পূর্ব ইউনিয়নের কোন্দ্রা দর্জি বাড়ির সালাউদ্দিনের স্ত্রী গত ১৩ জুন রাত সাড়ে ১০ টার দিকে প্রাকৃতিক ডাকে বাহির হলে একই বাড়ির পাশ্ববর্তী ঘরের আবুল বাশার বশু’র ছেলে আক্তার হোসেন পূর্বে থেকে ওঁৎ পেতে থাকে। গৃহবধু প্রাকৃতিক কাজ সেরে টিউবয়েলে হাতমূখ দোয়া অবস্থায় পেছন থেকে অভিযুক্ত আক্তার তাকে জড়িয়ে ধরে। এক পর্যায় ডাক-চিৎকার করতে গেলে গৃহবধুর মূখ চেপে ধরে অস্ত্র দেখিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

ঘরের ভিতরে ছোট তিন বছরের শিশুর পাশে থাকা স্বামী সালাউদ্দিন স্ত্রী ঘরে ফিরে আসতে দেরি দেখে বাহির হয়ে দেখে ধর্ষক আক্তার জোরপূর্বক তার স্ত্রীকে দেখে ফেলে।

স্বামী সালাউদ্দিন ধর্ষক আক্তারকে ধরতে গেলে সে হাত ছিটকে পালিয়ে যায়। পরে স্বামী স্ত্রী’র ডাকচিৎকারে আশেপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে এসে বিষয়টি দেখার পর ধর্ষক আক্তারের বাবা আবুল বাশারকে চাপ দেয় এ ঘটনার জন্য।

অভিযুক্তে বাবা তার ছেলেকে দূরে কোথায়ও পাঠিয়ে দিয়ে ওই গৃহবধূর চরিত্র নিয়ে কুৎসা রটায়।

এদিকে ঘটনার পর পরই গত ২৪ ও ২৬ জুন হাজীগঞ্জ থানায় এবং চাঁদপুর পুলিশ সুপার বরাবর ধর্ষিতা বাদী হয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

পরে হাজীগঞ্জ থানার এস আই জয়নাল আবেদীন ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রাথমিক তদন্ত শুরু করে।

তবে এ ঘটনা ধামাচাপা দিতে অভিযুক্তের পরিবারের পক্ষ হয়ে দালালচক্র সালাউদ্দিন পরিবারকে চাপ প্রয়োগ করে আসছে বলে জানান ধর্ষিতার স্বামী সালাউদ্দিন।