সাজেদা ফাউন্ডেশন ও কনসার্ন ওয়াল্ড ওয়াইড যৌথ সমন্বয়ে প্রশমন প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে

নগর জনগোষ্ঠীর টেকসই স্বাস্থ্য ও পুষ্টি উন্নয়নে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করবো-মোঃ মাজেদুর রহমান খান   

স্টাফ রিপোর্টার:চাঁদপুর জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান বলেন,সুবিধা বঞ্চিত প্রান্তিক নগর জনগোষ্ঠীর জন্য টেকসই স্বাস্থ্য ও পুষ্টি উন্নয়নে স্মার্ট কার্ড ভিত্তিক স্বাস্থ্য ভাউচার স্কীম প্রশমন প্রকল্প বাস্তবায়নে অামরা সকলে মিলে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করবো।অামরা পৌরসভার কাউন্সিলরদের সাহায্যে স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করাটা যতটা কঠিনই হউক না কেন তা অামরা করতে পারবো।অামরা জানি অামাদের সীমাবদ্ধতা রয়েছে তবুও অামরা অামাদের চেষ্টায় এগিয়ে যেতে পারবো।সকলের সহায়তা পেলে অামরা বলতে চাই সরকারের মাধ্যমে দেশে স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে পারবো।তিনি অারো বলেন,একটি সুন্দর বাংলাদেশ বিনির্মানে অামাদের সকলে একসাথে কাজ করতে হবে।দেশের জনগনের স্বাস্থ্য সেবার মাননোন্নয়ন করতে সাজেদা ফাউন্ডেশন এবং বিভিন্ন উন্নয়ন সংস্থা যে ইতিবাচক পদক্ষেপ নিয়েছে তা বাস্তবায়ন করতে হবে।অামাদের পৌর এলাকার মেয়র,কাউন্সিলর এবং সরকারের যে সব লোকজন রয়েছে তাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় তা অতি সহজেই বাস্তবায়ন করা সম্ভব হবে।কারন তারা অনেক অান্তরিকতার ফলে দীর্ঘদিন যাবৎ উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন।হেলেনকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন,একটি যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ হওয়া সত্ত্বেও বাংলাদেশ অাজ স্বাস্থ্য সেবায় অনেক এগিয়ে।সুন্দর বাংলাদেশ বিনির্মানে এই ধরনের সাহায্য অব্যাহত থাকবে বলে অাশা করি।গতকাল ১১ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সাজেদা ফাউন্ডেশন ও কনসার্ন ওয়াল্ড ওয়াইড যৌথ সমন্বয়ে প্রশমন পকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।সাজেদা ফাউন্ডেশন পরিচালক মোঃ ফজলুল হকের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পৌর মেয়র নাছির উদ্দিন অাহমেদ।এসময় প্রশমন কনসার্ন ওয়ার্ল্ডওয়াইডের প্রোগ্রাম ম্যানেজার মোঃ মোশাররফ হোসেন সবার সামনে প্রকল্পের মূল উপস্থাপনা করেন।তিনি বলেন,স্থানীয় সরকার,পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের অাওতায় ইউরোপীয় ইউনিয়নের অার্থিক সহযোগিতায় বাস্তবায়নাধীন ইইউ সাপোর্ট টু হেলথ এন্ড নিউট্রিশন টু দি পুত্তর ইন অারবান বাংলাদেশ শীর্ষক প্রকল্পের অাওতায় কনসার্ন ওয়াল্ডওয়াইড ও সাজেদা ফাউন্ডেশন চাঁদপুর পৌরসভায় বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছে টেকসই স্বাস্থ্য ও পুষ্টি উন্নয়নে স্মার্ট কার্ড ভিত্তিক স্বাস্থ্য ভাউচার স্কীম-প্রশমন প্রকল্প।প্রকল্পের অাওতায় নগর এলাকার সুবিধা বঞ্চিত প্রান্তিক জনগোষ্ঠীকে স্বাস্থ্য সেবা কার্ডের মাধ্যমে প্রাথমিক স্বাস্থ্য ও পুষ্টি সেবা প্রদান করা হবে এবং সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান সমূহকে প্রশিক্ষণ প্রদানসহ স্বাস্থ্য সেবা সম্পর্কিত অন্যান্য উন্নয়নমূলক কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে।পরে এক মুক্ত অালোচনা অনুষ্ঠিত হয়।এতে বক্তব্য রাখেন,চাঁদপুর সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ সাইদুজ্জামান,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(শিক্ষা ও অাইসিটি)মোঃ মঈনুল হাসান,(সার্বিক)মোহাম্মদ শওকত ওসমান,পরিবার পরিকল্পনা উপ পরিচালক ডাঃ মোঃ ইলিয়াছ,সাজেদা ফাউন্ডেশন উপ পরিচালক দিলিপ কুমার,সাজেদা ফাউন্ডেশনের জেনারেল ম্যানেজার ডঃ উজ্জল কুমার রায়,সাজেদা ফাউন্ডেশন প্রজেক্ট ম্যানেজার ইমরানুল হক,চাঁদপুরে প্রশমন প্রকল্প মাঠ সমন্বয়ক মোঃ শাহজাহান অালী,পৌরসভার বস্তি উন্নয়ন পরিকল্পনাবিদ চন্দন নাথ ঘোষ,পৌর নগর পরিকল্পনাবিদ সাজ্জাদ হোসেন,ঔষুধ ব্যবসায়ী সমিতি সভাপতি মোস্তফা রুহুল অানোয়ার,পৌর কাউন্সিলর মাইনুল ইসলাম পাটোয়ারী,হাবিবুর রহমান দর্জি,ফরিদা ইলিয়াছ,ডি এম শাজাহান প্রমুখ।এ সময় বিভিন্ন এনজিও সংস্থার নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।পরে অামন্ত্রিত অতিথিদের সামনে প্রশমন প্রকল্পের স্মার্ট কার্ডের মোরক উন্মোচন করা হয়।