শিক্ষিকা জয়ন্তী হত্যার রহস্য উদ্‌ঘাটনে পুলিশের বিরামহীন চেষ্টা

চাঁদপুর শহরে আলোচিত হত্যাকা- স্কুল শিক্ষিকা জয়ন্তী চক্রবর্তী হত্যার রহস্য এখনো উদ্ঘাটন করতে পারেনি পুলিশ। কোনো ক্লু বিহীন এ হত্যাকা-ের রহস্য উদ্ঘাটন করতে পুলিশকে হিমশিম খেতে হচ্ছে। পুলিশ বিরামহীন প্রাণান্তকর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে এ খুনের রহস্য উদ্ঘাটন করতে। কিন্তু এখনো পর্যন্ত কোনো কুলকিনারা পাচ্ছে না। পুলিশ নানা সন্দেহকে মাথায় রেখে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। তবে সময় লাগলেও পুলিশ আশাবাদী। এদিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্যে ডিসলাইনের দুই লাইন ম্যানকে আটক করা হয়েছিল। তাদেরকে পুনরায় আদালতের মাধ্যমে জিজ্ঞাসাবাদের জন্যে আনা হতে পারে বলে জানিয়েছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মডেল থানার এসআই অনুপ চক্রবর্তী।

শিক্ষিকা জয়ন্তী চক্রবর্তী হত্যা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই অনুপ চক্রবর্তীর সাথে গতকাল এ বিষয়ে কথা হয়। তিনি জানালেন মামলাটি নিয়ে রাতদিন বিরামহীন কাজ করতে হচ্ছে। তবে সময় লাগলেও তিনি এর রহস্য উদ্ঘাটনে আশাবাদী।

উল্লেখ্য, চাঁদপুর শহরের ষোলঘর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা জয়ন্তী চক্রবর্তী গত ২১ জুলাই রোববার দুপুরে ষোলঘরস্থ পানি উন্নয়ন বোর্ডের স্টাফ কোয়ার্টারে নিজ বাসায় নৃশংসভাবে খুন হন। অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা তাকে একাকী বাসায় গলা কেটে এবং মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় জখম করে খুন করে। ঘটনার পরদিন সোমবার জয়ন্তী চক্রবর্তীর স্বামী অলোক গোস্বামী বাদী হয়ে চাঁদপুর মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। অজ্ঞাত খুনিদের মামলায় আসামি করা হয়। ঘটনার দিন শিক্ষিকা জয়ন্তী চক্রবর্তীর স্বামী ও সন্তানরা ঢাকায় ছিলেন। অর্থাৎ সেদিন বাসায় তিনি একাই ছিলেন এবং এদিন তিনি স্কুলও ছুটি নিয়েছেন।