বাংলাদেশে পল্লী উন্নয়ন বোর্ড সিবিএ এর ঘোষিত ৭ দফা দাবি নিয়ে পল্লী ভবনের সামনে লাগাতার কর্মসুচি

রিপোর্টার, মোঃশরীফ হোসাইনঃ বাংলাদেশে পল্লী উন্নয়ন বোর্ড সিবিএ (জাতীয় শ্রমিক লিগের অন্ত্ররভুক্ত) এবং এর ঘোষিত ৭ দফা দাবি  নিয়ে ১লা সেপ্টেম্বর রোজ রবিবার সকাল ৯.০০ টা থেকে লাগাতার কর্মসুচী পালিত হচ্ছে। এতে বিআরডিবির ১৫ টি প্রকল্পের আট হাজার কর্মকর্তা কর্মচারী পল্লিভবন-৫ কারওয়ান বাজারের পাশে তাদের সাত দফা দাবি বাস্তবায়নের জন্য অবস্থান নিয়েছেন। উক্ত লাগাতার কর্মসুচীতে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন জনাব হাবীবুর রহমান সিরাজ- শ্রম ও জনশক্তি সম্পাদক, বাংলাদেশে আওয়ামীলীগ, বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন আলহাজ্ব সিরাজুল ইসলাম-সাধারন সম্পাদক, জাতীয় শ্রমিক লীগ, খান সিরজুল ইসলাম-যুগ্ন সাধারন সম্পাদক- জাতীয় শ্রমিক লীগ।

সিবিএর সভাপতি জনাব আব্দুর রাজ্জাক এর সভাপতিত্বে লাগাতার কর্মসুচী শুরু হয়। দাবি আদায়ের সোচ্চার বলিষ্ঠ নেতৃত্ববৃন্দের মধ্যে সঞ্চালনার দায়িত্ব পালন করেন জনাব এনামুল কবির খান, সাংগঠনিক সম্পাদক, সিবিএ। বক্তব্য রাখেন সিবিএ সাধারন সম্পাদক জনাব মফিজুল ইসলাম, কার্যকরী সভাপতি মঞ্জুরুল হক, সহ-সভাপতি আলী আজগর আলী, মোবারক হোসেন ভুইয়া, এম এ বারি-সিনিয়র সহ-সভাপতি, আব্দুর রাজ্জাক রাজু, এ কে এম রফিকুল ইসলাম-যুগ্ন সাধারন সম্পাদক, মোঃ মোবারক হোসেন-সিনিয়র সহ সভাপতি, মোঃ মোসলেহ উদ্দিন-সহ সভাপতি, মোস্তফা কামাল, জাকির হোসেন, লুবনা, ফজুল বারি চিশতী, জাকির-প্রচার সম্পাদক, মোঃ শরীফ হোসাইন এবং বিভিন্ন জেলার সভাপতি, সাধারন সম্পাদক সহ অন্যন্য নেতৃত্ববৃন্দ। বক্তারা তাদের দাবি আদায়ের জন্য বলেন, আমরা আন্দোলন করার উদ্দেশ্য হল, আমরা সরকারী বিধি মোতাবেক নিয়োগপ্রাপ্ত হই। কিন্ত অতীব দুখের বিষয় হল মাস শেষে বেত্ন পাইনি। যেখানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন এদেশে কেউ না খেয়ে মরবে না কিন্ত সেখানে বেতন বৈষম্যের কারনে প্রকল্পের ৮০০০ কর্মকর্তা কর্মচারীরা মানবেতর জীবন যাপন করছে। শতভাগ বেতন ভাতা নিশ্চিতকরণ এর জন্য দাবি আদায়ে আন্দোলন চলবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন আন্দোলনে যোগদানকারীরা। মহামান্য আদলতের রায়কে বাস্তবায়ন করে রাজস্ব খাতে অন্ত্ররভুক্ত করতে হবে, এবং ১৫টি প্রকল্পে জনবল সহ বি আর ডিবি কে বঙ্গবন্ধু পল্লী উন্নয়ন অধিদপ্তর করতে হবে বলে বক্তারা অভিমত ব্যাক্ত করেন।বক্তারা আরও বলেন দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত লাগাতার কর্মসুচি চলমান থাকবে।