ডিএইচএমএস (হোমিওপ্যাথি) স্নাতক মান নির্দেশে রীটের প্রস্তুতি ও সহযোগিতা।

রীট করা ও পরিচালনা করা অত্যন্ত ধৈর্য ও ব্যয় বহুল। সময়ের প্রয়োজনে হোমিওপ্যাথি ক্রান্তিকাল সময়ে অধিকার আদায়ে আন্দোলন-সংগ্রামের মাধ্যমে গড়ে উঠা একমাত্র অরাজনৈতিক সংগঠন “বাংলাদেশ ডিএইচএমএস (হোমিওপ্যাথি) চিকিৎসক, শিক্ষক, শিক্ষার্থী অধিকার পরিষদ” এর কেন্দ্রীয় কমিটি, বাংলাদেশ প্রস্তাবিত হোমিওপ্যাথি আইনে ডিএইচএমএস (হোমিওপ্যাথি) কোর্সকে ম্নাতক সমমান করার নির্দেশের জন্য জনস্বার্থে মহামান্য হাইকোর্টে রীট করার প্রস্তুতি নিয়েছে। আদালতের মাধ্যমে ১৯৭২খ্রি. হতে শোষিত ও বঞ্চিতদের চারদশকের সমস্যার স্থায়ী সমাধান চায়।

আপনি যদি মনে করেন, “বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা আইন (প্রস্তাবিত)” তে ডিএইচএমএস (হোমিওপ্যাথি) কোর্সকে স্নাতক (পাস) সমমান এর পরিবর্তে উচ্চমাধ্যমিক দিতে পারে ফলে “ডা.” পদবী লিখতে পারবেননা ও আপনার সামাজিক মর্যাদা ক্ষুণ্ণ এবং অন্যান্য সমস্যা হবে। এ বিষয়ে “বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা আইন (প্রস্তাবিত)” আইন নিয়ে কি আপনি আশঙ্কিত ও সংক্ষুব্ধ এবং মহামান্য হাইকোর্টে রীটে পক্ষ হয়ে আইনি লড়াই করতে চান?

আপনি যদি ডিএইচএমএস (হোমিওপ্যাথি) ডাক্তার হিসাবে রীটে পক্ষ হয়ে আইনি লড়াই করতে চান, তাহলে আপনি যদি যে কোন সালে ডিএইচএমএস (হোমিওপ্যাথি) পাসকৃত ও চিকিৎসক রেজিষ্ট্রেশন সনদপত্র প্রাপ্ত হন তাহলে নিজের নাম অন্তর্ভুক্ত করতে যোগাযোগ করুন এবং চিকিৎসক রেজিষ্ট্রেশন সনদপত্র ও জাতীয় পরিচয়পত্র এর ১ কপি ফটোকপি এবং নিজের নাম-ঠিকানা-মোবাইল নং প্রেরণ করুন।

আপনি যদি ডিএইচএমএস (হোমিওপ্যাথি) শিক্ষার্থী হিসাবে রীটের পক্ষ হয়ে আইনি লড়াই করতে চান, তাহলে ডিএইচএমএস (হোমিওপ্যাথি) কোর্সের ছাত্র রেজিষ্ট্রেশন কার্ড ও জাতীয় পরিচয়পত্র এর ১ কপি ফটোকপি এবং নিজের নাম-ঠিকানা-মোবাইল নং প্রেরণ করুন।

বিস্তারিত জানতে যোগাযোগ করুন :

প্রধান সমন্বয়ক
বাংলাদেশ ডিএইচএমএস (হোমিওপ্যাথি) চিকিৎসক, শিক্ষক, শিক্ষার্থী অধিকার পরিষদ।
কেন্দ্রীয় কমিটি, বাংলাদেশ।

বাসা : “ডাক্তার বাড়ী”, জগন্নাথ পাড়া, শেরপুর, বগুড়া-৫৮৪০, বাংলাদেশ।
মোবাইল নং ০১৭১৪ ৪৬৩১৩৮