বর্ণাঢ্য আয়োজনে চান্দ্রা ইমাম আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের শত বর্ষপূর্তি উৎসব উদযাপন

প্রতিনিধি ঳ বর্ণাঢ্য আয়োজনে নানা কর্মসূচী পালনের মধ্য দিয়ে ফরিদগঞ্জ উপজেলার ঐতিহ্যবাহী চান্দ্রা ইমাম আলী উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজের শত বর্ষপূর্তি উৎসব উদযাপন হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকালে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে পতাকা উত্তোলন, জাতীয় সংগীত পরিবেশন এবং বেলুন উড়িয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদের সদস্য ও স্থানীয় সংসদ সদস্য ড. মোহাম্মদ শামছুল হক ভূঁইয়া।

দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের মূলপর্ব আলোচনা সভা, অতিথি, প্রাক্তন শিক্ষক ও কৃতী শিক্ষার্থীদের সম্মাননা প্রদান করা হয়। বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মোঃ সফিকুর রহমান পাটওয়ারীর সভাপ্রধানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন মুক্তিযুদ্ধকালীন ৮নং সেক্টর কমান্ডার লেঃ কর্নেল (অবঃ) আবু ওসমান চৌধুরী।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান, পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার পিপিএম, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মোঃ হাবিবুর রহমান, ফরিদগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবু সাহেদ সরকার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এএইচএম মাহফুজুর রহমান।

সম্মানিত অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল খায়ের পাটওয়ারী, বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ওয়াহিদুর রহমান রানা, প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ শাহ্ মোঃ মকবুল আহমেদ, স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ শফিকুর রহমান পাটওয়ারী প্রমুখ। এছাড়া ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি নুরুন্নবী নোমান, সাধারণ সম্পাদক প্রবীর চক্রবর্তীসহ বিভিন্ন মিডিয়ার সংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। উদ্যাপন কমিটির সদস্য সচিব ডাঃ মোঃ হারুনুর রশিদ সাগরের সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন উদ্যাপন কমিটির আহ্বায়ক ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মাকছুদুর রহমান পাটওয়ারী।

অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের প্রবীণ ও প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক নাছির উদ্দিন পাটওয়ারী ও হরি পদ দত্ত উপস্থিত হওয়ায় তাঁদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন এবং তাঁদেরকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। প্রবীণ ও নবীনদের এ মিলন মেলায় এক আনন্দঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। স্মৃতিচারণের মাধ্যমে তাঁরা শৈশবের অনেক ছোট বড় গল্প নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরেন।

প্রধান অতিথি লেঃ কর্নেল (অবঃ) আবু ওসমান চৌধুরী বলেন, এ বিদ্যালয়ের অনেক ছাত্র দেশের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অধিষ্ঠিত রয়েছেন। স্বাধীনতা যুদ্ধেও তাদের অনেক ভূমিকা ছিলো। সরকারি উচ্চ পর্যায়ে এখনো অনেকে কাজ করছেন। তিনি বলেন, বর্তমান প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার বিশ্বাস লালন করে উন্নত দেশ গঠনে নিজেদের তৈরি করতে হবে।

এর আগে উদ্বোধকের বক্তব্যে ড. মোহাম্মদ শামছুল হক ভঁূইয়া এমপি বলেন, আজ বাঙালি জাতিকে কারো কাছে হাত পাততে হয় না। এখন আর আমরা কোনো গরিব দেশ নই। আমরা এখন মহাকাশেও স্থান করে নিয়েছি। এখন আর বাংলাদেশকে কেউ ছোট করে দেখার সুযোগ নেই। এখন অর্থের অভাবে কোনো শিক্ষার্থীকে পড়া বন্ধ করতে হয় না। সরকারই তাদের বিনামূল্যে বই দেয়াসহ উপবৃত্তির ব্যবস্থা করছে। তাই তোমরা যারা বর্তমান প্রজন্ম, তোমাদের স্বপ্ন দেখতে কোনো বাধা নেই। আমরা আশা করি তোমরা সে স্বপ্ন বাস্তবায়ন করবে।