ফরিদগঞ্জ রুস্তমপুরে ২য় শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা আটক ১

রফিকুল ইসলাম বাবু  ॥ চাঁদপুর ফরিদগঞ্জ উপজেলার রুস্তমপুর গ্রামে চকলেট ও সুইমগাম দেওয়ার নাম করে ২য় শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে বেড়াতে আসা এক  যুবক। জানা যায়, প্রতিদিনের ন্যায় বাবুল মিজির মেয়ে ফরিদগঞ্জ উপজেলার রুস্তমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ২য় শ্রেণীতে লেখা পড়া করে। প্রতিদিন স্কুলে যাওয়া ও আসার সময়ে লক্ষীপুর রায়পুর উপজেলার চারপাতা গ্রামের মোঃ সফিকের ছেলে মোঃ শরিফ (২০), বেশ কিছুদিন ধরে ঐ বাড়ির খালা মমতাজ বেগমের কাছে বেড়াতে আসে। প্রতিদিনই শিশু ছাত্রী মোঃ বাবুল মিজির মেয়েকে স্কুলে আসা ও যাওয়ার সময় উত্তপ্ত করত। এ নিয়ে বহুবার ছেলের খালা মমতাজ বেগমের কাছে অভিযোগ করা হয়। তাতে কোনো কর্নপাত হয়নি। ১৮ তারিখ মঙ্গলবার দুপুরে স্কুল থেকে বাড়ি যাওয়ার সময় মেয়েকে রুস্তমপুর বাগানে জড়িয়ে ধরে কাপড় খুলে ধর্ষণের চেষ্টা করে পাষন্ঠ মোঃ শরিফ। শিশুটির আত্ম চিৎকারে ঐ এলাকার মাদ্রাসার ছাত্রী বাড়ি যাওয়ার পথে সামিয়া আক্তার ও বুসরা আক্তার দৌড়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। ছুলে আসলে লম্পট ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। পরে এ ঘটনা জানা জানি হলে এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিরা ফরিদগঞ্জ থানায় মামলার জন্য পরামর্শ দেন। এ দিনই ফরিদগঞ্জ থানায় মেয়ের মা মোসাঃ মরিয়ম বেগম বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে ১৮ জনু ২০১৯ বুধবার মামলা নং-২৭ দায়ের করা হয়। এঘটনার পুলিশ অভিযান চালিয়ে ধর্ষক শরিফকে আটক করে পুলিশ। বুধবার সকালে শরিফকে কোর্টে প্রেরণ করা হলে আদালত জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণ করেন।