ফরিদগঞ্জে হিন্দু পরিবারের উপর মুসলিম পরিবারের হামলা

ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধি.
ফরিদগঞ্জ উপজেলার ১৫ নং রুপসা ইউপির পাড়া গাব্দেরগাঁও গ্রামের মনিগো বাড়ী (আব্দুর রব মাষ্টারের বাড়ী) একই বাড়ী বসবাস বসবাস করে আসছেন হিন্দু-মুসলিম দুই পরিবার। একই হিন্দু পরিবারের বৃদ্ধা খোকন দেবনাথের উপর হামলার অভিযোগ তুলেছেন মুসলিম পরিবারের আব্দুর রব মাস্টারের বিরুদ্ধে।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, ৪এ মে (শনিবার) সকালে হিন্দু পরিবারের নিজস্ব মালিকানাধিন জায়গায় লটকন গাছে মুসলিম আব্দুর রব মাস্টার বাশের খুঞ্চি দিয়ে বেড়া দেয়। হিন্দু পরিবারের খোকন দেবনাথ এলাকার আব্দুর রব মাস্টারের আত্বীয়দের কাছে বিষয়টি জানান, কিছুক্ষন পর আব্দুর রব মাস্টারের আত্বীয় হাবিব এসে বেড়াটি খুলে দেন। এতেই ক্ষিপ্ত হয়ে দুপুর ২ঘঠিকার সময় আব্দুর রব মাস্টার এবং তার সহ ধর্মীনি ও ছেলে মাহিন এসে হিন্দু খোকন দেবনাথের ঘরে প্রবেশ করে লাঠি দিয়ে খোকন দেবনাথের শরীরে বিভিন্ন স্থানে আঘাত করেন।
এবিষয়ে আব্দুর রব মাস্টারের আত্বীয় পাশ^বর্তি বাড়ীর আরিফুর রহমান আজাদ ও ইউপি সদস্য লিঠন মেম্বার জানান, গত কয়েক মাস পূর্বে খোকন দেবনাথ ও আব্দুর রব মাস্টারের মধ্যে জমি সংরান্ত বেপার নিয়ে সমস্যা ছিলো। পরবর্তিতে আব্দুর রব মাস্টারের সালা এবং সমন্ধি ও এলাকার লোকজন এসে তাদের দু’ পরিবারের সমস্যা সমাধান করেদেন। কিন্তু আব্দুর রব মাস্টার এলাকার বিচার সালিস তাওয়াক্কা না করে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ভাবে খোকন দেবনাথের উপর অত্যাচার করে আসছেন। তারই দ্বারাবাহিকতায় আজকের এ গঠনা গঠেছে। আমরা এর উপযুক্ত বিচার চাই।
এসময় খোকন দেবনাথের সাথে সাথে কথা হলে তিনি জানান, আমি অসুস্থ মানুষ বাংলাদেশের দেশের গনতন্ত্রে বিশ^াস করি এবং আমি নিরিহ মানুষ সব সময় এলাকার মানুষের সাথে মিলে মিশে থাকতে পছন্দকরি। কিন্তু আমার মনে হয় আব্দুর রব মাস্টার আমাকে এখানে থাকতে দিবে না। বর্তমানে আমি চিকিৎসাধিন রয়েছি। আমি ঘটনার বিচার চেয়ে থানায় অভিযোগ করবো। আমি প্রশাসনের সু-দৃষ্টি কামনা করছি।