ফরিদগঞ্জে প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতি

মো. শিমুল হাছান     ফরিদগঞ্জ উপজেলার প্রত্যাশী গ্রামের গাজী বাড়িতে প্রবাসীর বসত ভবনে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। বুধবার গভীররাতে ডাকাত দল গেটের তালা ভেঙ্গে প্রবাসীর স্ত্রীকে অস্ত্র ঠেকিয়ে প্রায় ১৮ ভরি স্বর্ণাংলঙ্কার  ও ৩টি মোবাইল  ফোন নিয়ে যায়। এদিকে সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, ৯নং গোবিন্দপুর ইউনিয়নের গাজী বাড়ি (হোনার বাড়ি) প্রবাসী হারুন গাজীর বসত ভবনে রাত ১.৩০ মিনিটি এর সময় ভবনের কেচিগেটের তালা ভেঙ্গে একদল ডাকাত ভিতরে প্রবেশ করে। এসময় হারুন গাজীর স্ত্রী সুফিয়া বেগম (৫৫) – এর গলায় ধারালো অস্ত্র ঠেকিয়ে স্টিল ও কাঠের দুটি আলমারির তালা ভেঙ্গে ৩ ভরি ওজনের একটি সোনার হার, ৭ জোড়া কানের দুল (আনুমানিক ৫ ভরি), দুটি আংটি(২ভরি), ৫টি নাকের ফুল ও ১টি মাথার টিকলী নিয়ে যায়।

এসর্ম্পকে সুফিয়া বেগম এপ্রতিনিধিকে বলেন, ডাকাতরা আমার গলায় বটি দা ও চুরি ঠেকিয়ে ১৮ ভরি স্বর্ণাংলঙ্কার ও ৩টি মোবাইল ফোন নিয়ে যায়। অপরএক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ডাকাতরা গেটের তালা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে প্রথমেই বৈদি্যুতিক বাতি বন্ধ করে দেয়। আমি চিৎকার করতে চাইলে তারা আমাকে মারধর করে। তাদের পরনে ছিলো থ্রি কোয়াটার প্যান্ট ও কালো গেঞ্জি। এ  নিয়ে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

এসর্ম্পকে একই বাড়ির আবু তাহের বলেন, ডাকাতরা আমাদের বাড়ির তিনটি ঘরের দরজায় খিল লাগিয়ে রাখে। ডাকাতরা সুফিয়া বেগমের কক্ষ থেকে বের হয়ে গেলে সুফিয়া বেগমের ডাক-চিৎকারে বাড়ির মানুষজন আসার পূর্বেই ডাকাতরা পালিয়ে যায়।এসর্ম্পকে ইউপি চেয়ারম্যান সোহেল চৌধুরী বলেন, গভীর রাতে প্রবাসী হারুন গাজীর বসত ভবনে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করা হয়েছে।ফরিদগঞ্জ থানার ওসি মো. শাহ আলম বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত থানায় কেউ অভিযোগ করেনি।