ফরিদগঞ্জে  নারীর কান ছিঁড়ে নিলো ছিনতাইকারীচক্র ॥ আটক দুই

মো. শিমুল হাছান
ফরিদগঞ্জে দুলের সাথে নারীর কান ছিঁড়ে নিয়েছে ছিনতাইকারীর দল। ফরিদগঞ্জ-রায়পুর সড়কের নারিকেল তলা নামক স্থানে বুধবার ভোর রাতে এই ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। অপরদিকে ছিনতাইয়ের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে উপলোর বারোপাইকা মিঝি বাড়ির মো. শামছুর রহমান রুবেল (২২) ও রায়পুর থানার হায়দরগঞ্জের চরপক্ষী ঢালি বাড়ির সোহেল হোসেন ঢালী (২২) নামে দুই যুবককে আটক করেছে পুলিশ। এছাড়া সন্দেহভাজন হিসাবে আরো দুই জনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

পুলিশ জানিয়েছে, আটককৃত রুবেল ও সোহেল এই ছিনতাইয়ের ঘটনার সময় উপস্থিত ছিলো বলে মামলার বাদী সনাক্ত করেছে।
এ সর্ম্পকে ওই নারীর স্বামী আমির হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, বুধবার রাতে লঞ্চযোগে আমি ও আমার স্ত্রী ফাতেমা বেগম ঢাকা থেকে চাঁদপুর লঞ্চঘাটে আসি। পরে রায়পুরে নিজ বাড়ির উদ্দেশ্যে সিএনজি অটোরিক্সাযোগে রওয়ানা হই। পথিমধ্যে নারিকেল তলা নামক স্থানে আসার পর ৬ জনের একটি ছিনতাইকারীর দল আমাদের বহনকারী সিএনজি অটোরিক্সার পথরোধ করে। এ সময় ছিনতাইকারীরা আমার স্ত্রী’র কানের দুল নেওয়ার জন্য কানে টান দিলে দুই কানেরই একাংশ ছিড়ে যায় এবং আমাদের সাথে থাকা নগদ ২৫ হাজার টাকা নিয়ে যায়। ছিনতাইকারীরা সিএনজিতে থাকা আরেক যাত্রীকে মারধর করে বিদেশ যাওয়ার ভিসা, সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র, জামাকাপড়ের ব্যাগ ও নগদ টাকা নিয়ে যায়।
অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ছিনতাইকারীরা দেশীয় অস্ত্রের মুখে যাত্রীদের জিম্মি করে আরো একটি সিএনজিতে ছিনতাই করে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।
এদিকে স্থানীয়রা জানিয়েছে, ফরিদগঞ্জ-রায়পুর সড়কের নারিকেল তলা নামক ওই স্থানে প্রায়ই রাতে লঞ্চযোগে বাড়ি ফেরা যাত্রীরা ছিনতাইকারীদের কবলে পড়ে সর্বস্ব হারাচ্ছে। স্থানীয় একটি শক্তিশালী চক্র এই ছিনতাইয়ের ঘটনার সাথে জড়িত রয়েছে। তবে তারা বিভিন্ন সময় দলীয় পরিচয় দিয়ে পার পেয়ে যাচ্ছে। উল্লেখ্য গত বছরও ছিনতাইয়ের অভিযোগে রুবেলকে আটক করে পুলিশ।
এসর্ম্পকে এস আই মনির হোসেন এ প্রতিনিধিকে বলেন, ছিনতাইয়ের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে দুই জনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃত রুবেল ও সোহেল এই ছিনতাইয়ের ঘটনার সময় উপস্থিত ছিলো বলে মামলার বাদী সনাক্ত করেছে। তাদেরকে পেন্যালকোড ৩৯৪ ধারায় আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।