ফরিদগঞ্জে এক ইউপি মেম্বার নির্বাচনের দায়িত্বে ছিলেন ৭৮ জন!

মো. শিমুল হাছান:
ফরিদগঞ্জে  বৃহসপ্রতিবার ১টি ওয়ার্ডের মেম্বার পদে উপনির্বাচনী কেন্দ্রে র‌্যাব, পুলিশ ও আনসার সদস্যরা নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করছেন। তাদের প্রতিজ্ঞা কোন ভাবেই ভোট কেন্দ্রে বিশৃঙ্খলা হতে দেবেন না। এই তিন বাহিনীর সদস্য সংখ্যা ৫৭ জন। অপরদিকে ভোট গ্রহণের দায়িত্বে ছিলেন সরকারি ২১ কর্মকর্তা। র‌্যাব ও পুলিশের উর্ধ্বতন দুই কর্মকর্তা পরিস্থিতি সার্বক্ষনিক খোঁজখবর নিচ্ছেন। এছাড়া একজন ম্যাজিষ্ট্রেট দায়িত্বে ছিলেন।
বৃহস্পতিবার (২৮ ফেব্রুয়ারী) দুপুর ১২টার সময় চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলায় ১০নং গোবিন্দপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের গোবিন্দপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মেম্বার পদে অনুষ্ঠিত উপ-নির্বাচনের চিত্র এটি। ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য রুহুল আমিন গাজীর মৃত্যুজনিত কারণে উক্ত নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।
ভোট কেন্দ্রের প্রবেশ পথে রাস্তার উপর ভোটার ও উৎসুক জনতার সরব উপস্থিতি ছিলো। দুপুর ১২টার সময় ভোট কেন্দ্রে প্রবেশ করে দেখা যায় ভোটারের চেয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত পুলিশ ও আনসার সদস্যদের উপস্থিতি বেশি। তবে সকালে ভোটর উপস্থিতি ছিলো বেশি।
পুরুষ ভোটারদের ৩টি বুথ নিয়ে গঠিত এক কেন্দ্রে প্রিজাডিং অফিসারের দায়িত্ব পালন করছিলেন উপজেলা সমবায় অফিসার নূরুল আবছার এবং মহিলা ভোটারদের ৪ বুথ নিয়ে গঠিত আরেক কেন্দ্রর দায়িত্ব পালন করছিলেন উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা মো. আবু শামীম। তারা এ প্রতিনিধিকে জানান, সহকারী প্রিজাডিং অফিসার ৭ জন ও ১৪ জন পোলিং অফিসার ভোট গ্রহণ করছেন। এখানে নারী ভোটার ১৫৪০ ও পুরুষ ভোটার ১৫৯২ জন। সর্বমোট ৩১৩২ জন ভোটারের মধ্যে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ৪৯.৬ শতাংশ নারী ও ৪৫.৮ শতাংশ পুরুষ তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছে। এছাড়া ৪ প্রার্থী ২৮ জন এজেন্ট বুথে রয়েছেন।
এ বিষয়ে এস আই নাজমুল হোসেন বলেন, স্টাইকিং ফোর্স হিসেবে র‌্যাবের ৮ জন ছাড়াও পুলিশ বাহিনীর ১৫ জন এবং আনসারের ৩৪ সদস্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় দায়িত্ব পালন করছেন। ম্যাজিস্ট্রেটের দায়িত্বে ছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মমতা আফরিন।
এদিকে সন্ধ্যায় নির্বাচনের প্রিজাডিং অফিসার মুঠোফোনে জানান, নির্বাচনী ফলাফলে প্রতিদ্বন্দ্বী ৪ প্রার্থীর মধ্যে নেছার আহম্মেদ ফুটবল প্রতীক নিয়ে জয়লাভ করেন।