ফরিদগঞ্জে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে প্রকল্প গ্রহণে অনিয়মের অভিযোগ

শিমুল হাছান,ফরিদগঞ্জ :
ফরিদগঞ্জ উপজেলার ২ নং বালিথুবা (পূর্ব) ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদের বিরুদ্ধে প্রকল্প গ্রহণের অনিয়ম প্রসঙ্গে জেলা প্রশাসক বরাবর অভিযোগ দাখিল করেছেন ওই ইউনিয়ন পরিষদের ছয় সদস্য। অভিযোগের ভিত্তিতে জানা যায়, উপজেলা থেকে ইউনিয়ন পরিষদের জন্য কর্মসৃজন প্রকল্প দ্বিতীয় পর্যায়ের ৪০ দিনের কাজের বিপরীতে প্রজেক্ট চাইলে ইউপি চেয়ারম্যান পরিষদের সদস্যদের সাথে কোন ধরনের সভা ছাড়াই নিজের ইচ্ছা মত একক সিদ্ধান্তে গত ২০ মার্চ প্রকল্প দাখিল করেন। এতে ইউনিয়ন পরিষদ ব্যবস্থাপনা ম্যানুয়াল এর ৮.৩.১ লঙ্ঘণ হয়েছে বলে মনে করেন অভিযোগকারীরা। তাদের মতে, চেয়ারম্যান শুধু এবারই নয়, পূর্বেও ইউনিয়ন পরিষদের জন্য বরাদ্দকৃত টি আর, কাবিটা, ১% এডিবিসহ সকল প্রকল্প গ্রহণে ইউপি সদস্যদের সাথে সভা না করে তিনি একক সিদ্ধান্তে প্রকল্প দিয়ে আসছেন। এ ছাড়াও অভিযোগে আরও জানা যায়, তিনি নিজের ওয়ার্ডে অন্যান্য ৪/৫ টি ওয়ার্ডের সমপরিমান বরাদ্দ দিয়ে থাকেন। তার একক সিদ্ধান্তের কারণে অন্য ওয়ার্ডের জনগন সুষম উন্নয়ন কর্মকান্ড হতে বঞ্চিত ও হত দরিদ্র লোকেরা বৈষম্যের শিকার হচ্ছে।
অভিযোগের বিষয়ে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও ১ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আব্দুল হাই মজুমদার বলেন, চেয়ারম্যানের স্বেচ্ছাচারিতার কারণে এ ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ডের জনগণ দুর্বিষহ জীবন-যাপন করছে। আমরা যারা সদস্য আছি, প্রতিনিয়ত ওয়ার্ডের জনগণের নানা প্রশ্নের সম্মুখীন হচ্ছি। চেয়ারম্যানের এহেন আচরণের কারণে আমরা তাদের কোন প্রশ্নের সদুত্তর দিতে পারি না।
এ প্রসঙ্গে ৫ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ জসিম উদ্দিন মিজি জানান, জনগুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প বাদ দিয়ে চেয়ারম্যান তার নিজের ওয়ার্ডে একই রাস্তাকে বার বার প্রকল্প দেখিয়ে টাকা আত্মসাৎ করছেন। এমনকি ভিজিডি চাউলের কার্ড অন্যান্য ওয়ার্ডে ১২ থেকে ১৪ টি করে দেয়া হলেও তার ওয়ার্ডে তিনি ২৬ টি দিয়েছেন।
অভিযোগের ব্যপারে চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদের মুঠোফোনে কয়েকবার চেষ্টা করে ও বার্তা পাঠিয়েও তার কোন সাড়া না পাওয়ায় মন্তব্য নেয়া যায়নি।