ফরিদগঞ্জের এমপিকে কটুক্তির প্রতিবাদে খায়ের পাটওয়ারীর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল ও বিচার দাবী

মো: শিমূল হাছন,
ফরিদগঞ্জে আওয়ামী লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর আলোচনা সভায় উপজেলা ্্্আাওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের পাটওয়ারীর বক্তব্য-কে কেন্দ্র করে ফরিদগঞ্জে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে রাজনৈতিক অঙ্গন। মুহম্মদ শফিকুর রহমান এমপিকে উদ্দেশ করে আক্রমাণত্মক ও আপত্তিকর বক্তব্যে রেখেছেন বলে দলের বিভিন্ন স্তরের নেতা কর্মীরা দাবী করেছেন।
ওই বক্তব্যের প্রতিবাদে গতকাল রোববার বিকালে ছাত্রলীগ নেতা রিমনের উদ্যোগে প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ মিছিল বের হয়েছে। শনিবার দুপুরে স্থানীয় বিআরডিবি’র ভবনে দলীয় কার্যালয়ে সভার আয়োজন করে আওয়ামী লীগ ফরিদগঞ্জ উপজেলা শাখা।
দলের ক্ষুদ্ধ নেতাকমীরা জানায়, ফরিদগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের পাটওয়ারী তার বক্তবব্যে মুহম্মদ শফিকুর রহমান এমপির নাম উল্লেখ করে বলেছেন, আপনি লাপাত্তা বাহীনি দিয়ে আমাদের দলীয় নেতা-কর্মিদের উপর নির্দয় ও নির্মমভাবে আঘাত করেছেন। আপনাকে প্রতিরোধ করার জন্য আমি অনেক আগেই উপজেলা পরিষদের সমন্বয় সভায় বক্তব্য দিয়েছিলাম, সেখানে আবু সাহেদ সরকার ছিলো। দুর্ভাগ্য, আজকে মিলনের উপর আক্রমণ করে উনি ওনার নিজ বাড়িতে নিরাপদ স্থানে চলে গেছেন। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, আবু সাহেদ সরকার যদি এখান (ভাটিয়ালপুর) থেকে হুংকার দিয়ে ঐখানে (নয়ারহাট বাজার) যেত, তাহলে সাংবাদিক শফিকের একটি কর্মীও ঐখান থেকে জ্যান্ত আসতে পারতো না। মুহম্মদ শফিকুর রহমান এমপি-কে উদ্যেশ করে তিনি আরও বলেন, আমার কাছে এমন প্রমাণ আছে, তা প্রকাশ করলে তার পার্লামেন্ট সদস্য (এমপি) পদ থাকবে না।
এদিকে, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মুহম্মদ শফিকুর রহমান এমপিকে কটুক্তি করে তার বিরুদ্ধে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির দেয়া বক্তব্যকে কেন্দ্র কওে দলের ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা বিক্ষোভে ফেটে পড়েন। শনিবার দিনব্যাপী নেতাদের মধ্যে আলোচনার মূল বিষয় ছিলো সভাপতির বক্তব্য। এরই জের ধরে গতকাল রোববার বিকালে ছাত্রলীগের বিক্ষুদ্ধরা বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ মিছিল করেছে। মিছিলটি ফরিদগঞ্জ পৌর বাজারের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।
মিছিলকারীরা, “এমপি সাহেবকে নিয়ে কটুক্তিকারী, খায়ের পাটওয়ারীর বিচার চাই” বিচার চাই মর্মে স্লোগান দেন। মিছিল শেষে ফরিদগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মাহফুজুল হক ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যাক্ত করে বলেছেন, আবুল খায়ের পাটওয়ারী এখন খেই হারিয়ে ফেলেছেন। তাই আবোল-তাবোল খিস্তি খেউর করছেন। তিনি না কি প্রয়োজনে পুলিশ বেষ্টনী থেকে বের করে নিয়ে এমপি মহোদয়কে শারিরীকভাবে আক্রমণ করবেন।
ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়ায় মেয়র মাহফুজ বলেন, ৬ জুলাই বিএনপি পরিকল্পিত ভাবে যেখানে জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমান ও তারই সুযোগ্য কন্যা দেশরতœ শেখ হাসিনার ছবি অবমাননা করার প্রতিবাদে ফরিদগঞ্জে একমাত্র পৌর আওয়ামীলীগের উদ্যেগে প্রতিবাদ কার হলেও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল খায়ের পাটওয়ারীর সেখানে দলের স্বার্থে প্রতিবাদ না করে এখন ব্যক্তিস্বার্থে আমাদের প্রানপ্রিয় নেতা মুহম্মদ শফিকুর রহমান এমপির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার বিষয়টি রহস্যেজনক বলে তিনি দাবী করছেন। এ ছাড়া মেয়র আরো বলেন, বিভিন্ন সময়ে রাস্তায় ও বিভিন্ন অফিসে উপিস্থিত হয়ে মানুষকে গালমন্দ হুমকি ধমকি দিয়েছেন। সাধারণ রিক্সা শ্রমিক ও সিএনজি চালককে মারধর করে পায়ের হাড় ভেঙ্গে দিয়েছেন। তিনি খায়ের পাটয়ারীর এহেন উগ্র আচরণের বিচার দাবী করেছেন। ফরিদগঞ্জ বঙ্গবন্ধু সরকারী ডিগ্রী কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মহিউদ্দিন রিমনের নেতৃত্বে রোববার বিকালের বিক্ষোভ মিছিলে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সভাপতি রাশেদ হোসাইন, নূর আলম পাটওয়ারী, মোঃ মিনহাজ, সাগর পাটওয়ারী, কাউছার হামিদ, জুয়েল খান, মোঃ মিলন, মোঃ নাঈম ও মোঃ সজিব প্রমুখ।