চাঁদপুর মডেল থানার সাঁড়াশি অভিযানে আতংকিত মাদক কারবারীরা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ চাঁদপুর সদর মডেল থানার গত তিন মাসে মাদকের বিরুদ্ধে ষাড়াসি অভিযান পরিচালিত হয়েছে। যার ফলে বুধবার (৬ মার্চ) পর্যন্ত ৬৮জন মাদক সেবী ও বিক্রেতা আত্মসমর্পন করেছেন। থানায় মাদক সংক্রান্ত মামলা হয়েছে ১০৬টি। বর্তমানে মাদক ক্রয়-বিক্রেতা ও জড়িতরা আতংকিত হয়ে পড়েছে। এ ধারা অব্যাহত থাকলে মাদকসহ অপরাধে জড়িতরা ক্রমশঃ দূর্বল হয়ে পড়বে।

থানা সূত্রে জানা যায়, চাঁদপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নাসিম উদ্দিন গত ৩ মাস পূর্বে যোগদান করেন। তিনি যোগদানের পর থেকে পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির বিপিএম, পিপিএম এর নির্দেশে ওসি নাসিম উদ্দিন জেলা শহরের পাড়া মহল্লায় মাদক বিরোধী ব্যাপক অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় তিনি ও মডেল থানার অন্যান্য কর্মকর্তারা পাড়া মহল্লায় মাদক সেবী ও বিক্রেতাদের অভিভাবকদেরকে সতর্ক ও সচেতন করেন। পাশাপাশি এলাকাবাসীকে মাদকের বিরুদ্ধে সোচ্চার ও তথ্য প্রদানের জন্য অনুরোধ জানান।

ওসি নাসিম উদ্দিন মাদক, সন্ত্রাস, বাল্য বিবাহ ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে জিরো ট্রলারেন্স ঘোষণা করে এসব অভিযান অব্যাহত রেখেছেন।
গত ৩ মাসে সদর উপজেলার ১৪টি ইউনিয়ন ও পৌরসভার ১৫টি ওয়ার্ডে অপরাধমূলক কার্যক্রম নিয়ন্ত্রণ করার জন্য ৩৪টি সভা করা হয়েছে।

নিয়মিতসহ মাদক মামলা হয়েছে ১৭৩টি। এর মধ্যে ডিসেম্বর মাসে মামলা হয়েছে ৪৯টি, মাদক মামলা ২৬টি। জানুয়ারী মাসে ৭০টি, মাদক মামলা ৪৬টি। ফেব্রুয়ারি মাসে ৫৪টি, মাদক মামলা ৩২টি। পুরো থানায় এলাকায় আইন শৃঙ্খলা অবস্থা উন্নতি করণের লক্ষ্যে কমিউনিটি পুলিশিং এর সদস্যসহ সুধীজনদের নিয়ে ওপেন হাউস ডে হয়েছে ৩টি।

চাঁদপুর মডেল থানার (ওসি) মো. নাসিম উদ্দিন জানান, তিনি থানায় যোগদানের পর থেকে মাদক, বাল্যবিয়ে, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে জিরো ট্রলারেন্স ঘোষণা করেছেন। সেই আলোকে তিনি কার্যক্রমও পরিচালনা করেছেন। চাঁদপুরে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে এসব উদ্যোগ অব্যাহত থাকবে।