চাঁদপুর বেলভিউ হাসপাতালে ঘুমন্ত  রুগীর টাকা ও মোবাইল চুরি, সিসি ক্যামেরায় চোর শনাক্ত

চাঁদপুর কুমিল্লা মহাসড়কের চেয়ারম্যান ঘাট বেলভিউ হাসপাতালে ঘুমন্ত অবস্থায় রোগীর রুমে প্রবেশ করে নগদ টাকা ও মোবাইল ছিনতাই করেছে চোরচক্র।
সোমবার ভোর ৬টা ১৫ মিনিটে বেলভিউ হাসপাতালে গেট খোলা দেখে ভিতরে প্রবেশ করে অজ্ঞাতনামা এক চোর।
এ সময় হাসপাতালে কোন দারোয়ান না থাকায় ও রিসিপশনের দায়িত্বরত কর্মচারী ঘুমিয়ে থাকায় সেই সুযোগে অজ্ঞাত নামা চোর ১ তলা থেকে পঞ্চম তলায় তল্লাশি করে। পরে শাহীন আক্তার নামে এক রোগীর কক্ষে প্রবেশ করে নগদ ৫৭ হাজার টাকা ও দু’টি মোবাইল চুরি করে নিয়ে যায়।
দুইদিন পূর্বে শরীয়তপুর জেলা থেকে আব্দুল কাদের নামে এক ব্যক্তি তার স্ত্রী শাহিনা আক্তার কে নিয়ে চাঁদপুর বেলভিউ হাসপাতালে ভর্তি করায়।
সোমবার রাতে শাহিনা আক্তারের সিজারে বাচ্চা প্রসব করা গাইনি ডাক্তার তানিয়া।
হাসপাতালের কর্তব্যরত নার্স সকাল ছয়টায় রোগীকে ইনজেকশন পুশ করার কথা বললে ভোরে স্বামী আব্দুল কাদের দরজা খুলে স্ত্রীর পাশের বিছানায় ঘুমিয়ে পড়ে।
ভোর ৬ টা ১২ মিনিটে অজ্ঞাতনামা হলুদ গেঞ্জি পরিহিত এক চোর বেলভিউ হাসপাতালে প্রবেশ করে পঞ্চম তলায় উঠে কেবিনগুলো তরজা তল্লাশি করে।
রোগী শাহিনা আক্তারের দরজা খোলা দেখতে পেয়ে চোর ভিতরে প্রবেশ করে তাদের দুটি মোবাইল সেট ও ব্যাগে থাকা ৫৭ হাজার টাকা চুরি করে নিয়ে পালিয়ে যায়।
সকালে হাসপাতালে নার্স ইনজেকশন পুশ করতে কক্ষে প্রবেশ করার পর ঘুম থেকে উঠে আব্দুল কাদের মোবাইল খুজে না পেয়ে চুরির ঘটনাটি উপলব্ধি করে।
পরে হাসপাতালে সিসি ক্যামেরার ফুটেজ ধরা পড়ে চুরির ঘটনাটি।
খবর পেয়ে চাঁদপুর মডেল থানার পুলিশ হাসপাতালে গিয়ে সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করে চোরকে শনাক্ত করতে সক্ষম হয়।
পুলিশ জানায়, হাসপাতলে এই দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনায় সিসি ক্যামেরা ধরা পড়া ওই চোরকে আটক করার জন্য পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছে। খুব দ্রুত ওই চোরকে আটক করা সম্ভব হবে বলে পুলিশ জানায়।

এদিকে বেলভিউ হাসপাতালে চুরির ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য ও থানায় অভিযোগ না করার জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ রোগীর পরিবারকে চাপ প্রয়োগ করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এই চুরির ঘটনাটি নিজেদের মধ্যে সীমাবদ্ধ রেখে কাউকে না জানার জন্য পরামর্শ দেন।
ঘটনা সমাধান না হওয়ায় চোরকে ধরতে না পারায় অবশেষে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার পুলিশকে বিষয়টি জানায়। পরে পুলিশ হাসপাতালে গিয়ে সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের কাছ থেকে একটি লিখিত অভিযোগ গ্রহণ করেন।