চাঁদপুর থেকে লঞ্চ চলাচল শুরু নৌযান ধর্মঘট প্রত্যহার

নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সিদ্ধান্তে যাত্রীবাহী লঞ্চ চলাচলের ঘোষণা দেয়া হয়েছে। আর এ ঘোষণার পরিপ্রেক্ষিতে চাঁদপুর-ঢাকা নৌ-রূটে সন্ধ্যা ৭টা থেকে লঞ্চ চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে।

গতকাল ২৪ জুলাই বুধবার সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নৌযান শ্রমিক ফেডারেশন আঞ্চলিক কমিটির দায়িত্বশীল ও নৌযান শ্রমিক লীগের চাঁদপুর জেলা সভাপতি বিপ্লব সরকার। তিনি জানান, কেন্দ্রের ঘোষণা অনুযায়ী চাঁদপুর, বরিশালসহ সব রূটে লঞ্চ চলাচল শুরু হয়েছে।

এদিকে লঞ্চ ছাড়ার ঘোষণার পরপরই চাঁদপুর লঞ্চঘাট পণ্টুন থেকে সরিয়ে মাঝ নদীতে রাখা লঞ্চগুলো ফের পণ্টুনে এনে বার্দিং করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিআইডবিস্নউটিএ’র নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগ।

এর আগে শ্রম অধিদপ্তরের সম্মেলন কক্ষে এক সভায় বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি মোঃ শাহআলম ও সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী আশিকুল আলম নৌযান ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন। শ্রম অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোঃ মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানান শ্রম মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা আকতারুল ইসলাম।

নৌ-পথে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, শ্রমিক নির্যাতন বন্ধ ও সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার, নৌযান শ্রমিকদের সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করা, কর্মস্থলে দুর্ঘটনায় মৃত নৌ শ্রমিকদের পরিবারকে ১০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ প্রদান, বেতন-ভাতা বৃদ্ধিসহ ১১ দফা দাবিতে মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিট থেকে কর্মবিরতি শুরু করেন নৌযান শ্রমিকরা।