চাঁদপুরে বিএনপি নেতা আটককে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ-বিএনপি সংঘর্ষ, আহত-৪০

রফিকুল ইসলাম বাবু  ॥ চাঁদপুর-৩ আসনে ধানের শীষ প্রার্থীর প্রধান নির্বাচন সমন্বয়কারী ও জেলা বিএনপি’র সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট সলিম উল্যা সেলিমকে আটক করা হয়েছে। সোমবার বেলা ১২ টার দিকে শহরের জে এম সেনগুপ্ত রোডস্থ ধানের শীষের প্রার্থী শেখ ফরিদ আহমেদ মানিকের বাসভবনের সামনে থেকে বিজিবি ও পুলিশ সদস্যরা যৌথ অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে। তাকে আটকের প্রতিবাদে প্রার্থী শেখ ফরিদ আহমেদও পুলিশের গাড়িতে উঠে যান এবং স্বেচ্ছায় থানায় যেয়ে অবস্থান নেন। এই খবর শহরে ছড়িয়ে পড়লে বিএনপি’র শত শত নেতা-কর্মী চাঁদপুর সদর মডেল থানায় প্রবেশের মুখ বন্ধ করে সেখানে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করতে থাকে। বেলা সাড়ে ১২ টা থেকে দুপুর সোয়া ১ টা পর্যন্ত তারা থানার প্রবেশ মুখে অবস্থান করে বিক্ষোভ করতে থাকে। পরে ধানের শীষের প্রার্থীর অনুরোধে দুপুর ১ টা ২০ মিনিটে দলীয় নেতা-কর্মীরা মিছিল করে তার বাসার দিকে যেতে থাকে। মানিকের বাসার দিকে যাওয়ার সময় জে এম সেনগুপ্ত রোডে হঠাৎ করে দু’গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। এক গ্রুপ অপর গ্রুপকে লক্ষ্য করে মুহুর্মূহু ইট-পাটকেল নিক্ষেপ শুরু করে। মুহূর্তের মধ্যে পুরো এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। এসময় সংঘর্ষে কমপক্ষে ৪০ জন আহত হয়। পরে দুপুর সোয়া দুইটার দিকে পুলিশ, বিজিবি ও র‌্যাব এসে ঘটনা নিয়ন্ত্রণে আনে। বিক্ষুব্ধ আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীরা বিএনপি প্রার্থী মানিকের বাসার গেইট ভাংচুর করে। বর্তমানে ঘটনাস্থলে থম থমে অবস্থা বিরাজ করছে এবং আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা সেখানে অবস্থান নিয়েছে। অ্যাডভোকেট সলিমুল্লা সেলিশকে কেন আটক করা হয়েছে তা এখনো নিশ্চিত করা হয়নি। তবে পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তার বিরুদ্ধে থানায় একটি নিয়মিত মামলা রয়েছে।