চাঁদপুরের মহিলা মেম্বারের বাড়িতে হামলা ভাঙচুর ও লুটপাট আহত ২

শাহরিয়ার খান কৌশিক,

চাঁদপুর সদর উপজেলার ১২ নং চান্দ্রা ইউনিয়নের মহিলা মেম্বার মনোয়ারা বেগমের বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। সন্ত্রাসী হামলায় মহিলা মেম্বারের শরীরে আঘাত ও তার স্বামী মান্নান শেখের হাত ভেঙে দিয়েছে।

শুক্রবার দুপুরে চান্দ্রা ৯ নং ওয়ার্ড ঘাসের বাড়ি এলাকায় ৭,৮,৯ নং ওয়ার্ড মহিলা মেম্বার মনোয়ারা বেগমের বাড়িতে এই হামলার ঘটনা ঘটে।
আহত মনোয়ারা মেম্বার জানায়, জব্বর ঢালির দোকান এলাকার বাসিন্দা ৭নং ওয়ার্ড মেম্বার জাহাঙ্গীরের মেয়েকে এই বাড়ির হাবিবুর রহমান শেখের ছেলে কুতুব উদ্দিন এর কাছে বিয়ে দেয়। তাদের সাথে জায়গা নিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ বিরোধ চলে আসছিল। নিজের জায়গায় ছনের বেড়া দিয়ে রান্না ঘর তৈরি করায় মেয়ের জামাই এর পক্ষ নিয়ে ৭নং ওয়ার্ড মেম্বার জাহাঙ্গীর সন্ত্রাসীদের সাথে নিয়ে এসে অতর্কিতভাবে হামলা চালায়। সন্ত্রাসীরা ঘরবাড়ি ভাঙচুর করে আলমারি ভেঙ্গে টাকা-পয়সা লুট করে নিয়ে যায়। মেম্বার জাহাঙ্গীর লাঠি দিয়ে আঘাত করে স্বামী মান্নান শেখ এর হাত ভেঙে ফেলে। পরে তাকে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা করানো হয়। এই জাহাঙ্গীর মেম্বার এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে অন্যের সম্পত্তি দখল সহ বিভিন্ন অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে। তার ভয়ে এলাকার কোন মানুষ কথা বলতে সাহস পায় না। কারণ সে সন্ত্রাসের গডফাদার। এই সন্ত্রাসী জাহাঙ্গীর মেম্বারের হাত থেকে এলাকাবাসী রক্ষা পেতে চায়। যেখানে একজন মহিলা মেম্বারের নিরাপত্তা নেই সেখানে সাধারণ জনগণ কিভাবে নিরাপদে থাকবে এটাই জনমনে প্রশ্ন।
এ ব্যাপারে ১২ নং চান্দ্রা ইউনিয়নের খান জাহানআলী কালু পাটোয়ারীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মহিলা ও পুরুষ মেম্বার এর সাথে অনাকাঙ্ক্ষিত ভাবে যে ঝগড়া হয়েছে তা দুঃখজনক। এই ঘটনাটি স্থানীয়ভাবে সমাধান করে দেওয়ার জন্য উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত জাহাঙ্গীর মেম্বার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মহিলা মেম্বার আমাকে ডেকে নিয়ে অপমানিত করেছে। তার স্বামীকে কেউ মারধর করেনি। সিদ্দিক মেম্বার পুরো ঘটনাটি জানেন। শনিবার বিষয়টি নিয়ে সামাজিক ভাবে বসে সমাধান করা হবে।