হাজীগঞ্জে গৃহবধূর উপর হামলা মুমূর্ষু অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি

মিজান লিটনঃ-
হাজীগঞ্জ উপজেলার ৯নং গন্ধর্ব্যপুর উত্তর ইউনিয়নের কাঁকৈরতলা গ্রামের মিজান পার্শ্ববর্তী ভূঁইয়া বাড়ির দুই সন্তানের জননী দিনমজুর আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী কুলছুমা বেগম (২৮)কে বেদম পিটিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল ২৬ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার সকালে।

হাসপাতালে চিকিৎসারত আহত কুলছুমা বেগম জানান, বৃহস্পতিবার সকালে তিনি তার স্বামী আনোয়ার হোসেন ও পরিবারের অন্যদের সাথে কথা কাটাকাটি করছিলেন। এ সময় পাশের বাড়ির আব্দুর রবের ছেলে মিজান এসে কোনো কিছু বুঝে উঠার আগেই কুলছুমার উপর টেঁটা দিয়ে অতর্কিত হামলা করে। তাকে উপর্যুপরি আঘাত করলে তার আর্তচিৎকারে পার্শ্ববর্তী লোকজন ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, কাঁকৈরতলা গ্রামের চিহ্নিত সন্ত্রাসী আব্দুর রবের ছেলে মিজান দীর্ঘদিন থেকেই একের পর এক ঘটনা ঘটিয়েই চলেছে। সন্ত্রাসী মিজান সে ধারাবাহিকতায় কুলছুমার উপর দেশীয় অস্ত্র দিয়ে এ হামলা চালায়। পরে তাকে আহত অবস্থায় হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেঙ্ েভর্তি করা হয়। হাসপাতালে গিয়ে কুলছুমার শরীরে প্রচণ্ড আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়। টেঁটার আঘাতে তার শরীর ও পেটে রক্তক্ষরণ হতে দেখা যায়। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কুলছুমার চিৎকারে আকাশ বাতাস ভারি হয়ে উঠেছে। ডাক্তার তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন। এদিকে অসহায় দিনমজুর আনোয়ারের দুই শিশু সন্তান মায়ের এ অবস্থা দেখে শুধুই কাঁদছে।

ঘটনাস্থলে গিয়ে জানা যায়, আব্দুর রবের ছেলে মিজান তার উপর হামলা করে এখন ঐ পরিবারের উপর মামলা না করার জন্য চাপ প্রয়োগ করছে এবং এ ব্যাপারে কেউ মুখ খুললে তাকেও দেখে নেয়ার হুমকি দেয়।