শ্রেষ্ঠ তদন্তকারী কর্মকর্তা হিসেবে চাঁদপুর মডেল থানার দু উপ-পরিদর্শক ডিআইজি পুরষ্কার পেলেন

7_8708
নিজস্ব প্রতিনিধি-

চাঁদপুর মডেল থানার দু’ উপ-পরিদর্শক শ্রেষ্ঠ তদন্তকারী কর্মকর্তা হিসাবে চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি কর্তৃক পুরষ্কৃত হয়েছেন। গত ৩০ সেপ্টেম্বর সকাল সাড়ে ১০টায় চট্টগ্রাম ডিআইজি রেঞ্জ অফিসে তাদেরকে এ পুরস্কার প্রদান করা হয়।
চাঁদপুর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক আবু সাঈদ ও মানিক মিয়া এ পুরস্কার গ্রহণ করেন। উপ-পরিদর্শক আবু সাঈদ চাঁদপুর সদর উপজেলা চান্দ্রা ইউনিয়নের জামায়াত ইসলামী সভাপতি হাবিবুর রহমান বিভিন্ন সমিতির অর্থ আত্মসাৎসহ নিজে সিলেটে আত্মগোপন করেন। তার স্ত্রী শাবানা বেগমকে দিয়ে পুরো জেলায় ডিবি পুলিশ তার স্বামীকে অপহরণ করেছে বলে মিথ্যাচার করে চাঁদপুর মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে। দীর্ঘ দু’মাস তদন্ত শেষে তদন্ত কর্মকর্তা আবু সাঈদ তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে আত্মগোপনকারী হাবিবুর রহমানকে সিলেট থেকে সিএনজি স্কুটার চালানো অবস্থায় আটক করে প্রশংসার দাবিদার হয়। একইভাবে অপর উপ-পরিদর্শক মানিক মিয়া চাঁদপুর সদর উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের কলমতর গাজী হত্যার ঘটনার রহস্য উদ্ঘাটন করেন। কলমতর গাজীর স্ত্রী পার্শ্ববর্তী বাড়ির জনৈক যুবকের সাথে স্বামী প্রবাসে থাকায় পরক্রিয়া প্রেমে আসক্ত হয়ে পরে। যার জন্য স্ত্রী ও পরক্রিয়া প্রেমিকের যোগসাজসে কলমতর গাজীকে হত্যা করে ঘরের পাশে মাটি চাপা দিয়ে রাখা হয়। তার স্ত্রী চাঁদপুর মডেল থানায় ঘটনার পরদিন সকালে মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে তার স্বামীকে কে-বা কারা রাতে মোবাইল করে ঘর থেকে ডেকে নিয়ে যায় এরপর থেকে সে আর ফিরে আসেনি। চাঁদপুর মডেল থানার পুলিশের কাছে অভিযোগটি সন্দেহ হলে মানিক মিয়া বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করে। ৪ দিনের মাথায় কলমতর গাজীর হত্যাকারী প্রেমিক যুবককে স্থানীয় লোকজনের সন্দেহ হলে মডেল থানা পুলিশের মাধ্যমে তাকে আটক করে । তারই স্বীকারোক্তিতে কলমতর গাজীর বসতঘরে পাশ থেকে পুলিশ তার অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করে। একই সাথে কলমতর গাজীর স্ত্রীকে আটক করা হয়। এ দু’টি চাঞ্চল্যকর ঘটনার রহস্য উদ্ঘাটন করে অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারায় চাঁদপুর মডেল থানার এ দু’ পুলিশ কর্মকর্তাকে ডিআইজি কর্তৃক পুরুস্কৃত করা হয়। আবু সাঈদ ও মানিক মিয়ার হাতে ক্রেস্ট ও প্রশংসাপত্র তুলে দেন চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি নওশের আলী (পিপিএম)। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি মোঃ মাহবুবুর রহমান ও মোঃ মোশারফ হোসেনসহ ১১ জেলার পুলিশ সুপারগণ।