শাহরাস্তি চিতোষী ডিগ্রি কলেজে বিগত ৯ বছরেও উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি।

শাহরাস্তি (চাঁদপুর) প্রতিনিধিঃ চাঁদপুরের শাহ্রাস্তির ঐতিহ্যবাহী চিতোষী ডিগ্রি কলেজে বর্তমান সরকারের বিগত ৯ বছরেও কোনো উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। ডিজিটাল ল্যাব না থাকায় আইসিটি শিক্ষা ব্যাহত। শ্রেণি কক্ষ সংকটসহ বিভিন্ন সমস্যার কারনে মানসম্মত শিক্ষা ব্যাহত হচ্ছে। বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকারের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা শিক্ষা ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন আনলেও চিতোষী ডিগ্রি কলেজ বঞ্চিত হচ্ছে। শাহ্রাস্তি উপজেলায় ৪টি ডিগ্রি কলেজ রয়েছে। তার মধ্যে ৩টি কলেজসহ বিভিন্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ডিজিটাল ল্যাব ও ৪ তলা বিশিষ্ট আইসিটি ভবন হয়েছে। চিতোষী ডিগ্রি কলেজে অনুরূপ একটি ভবন দেওয়ার প্রতিশ্রতি দিয়েছে। জাতীয় নির্বাচনের পূর্বে চিতোষী ডিগ্রি কলেজে ৪তলা একটি একাডেমী ভবন হওয়ার জন্য এলকাবাসী প্রত্যাশা। কলেজ অধ্যক্ষ মোঃ হানিফ এর সাথে আলাপ কালে তিনি জানান, ১৯৯৬ সালে আমাদের জাতীয় সংসদ সদস্য মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম, এমপি চিতোষী ডিগ্রি কলেজের মাঠের উত্তর পাশে ৪ শ্রেণি কক্ষ বিশিষ্ট একটি দ্বিতল ভবন সরকারি ভাবে করে দিয়েছেন এবং ডিগ্রি সেন্টারের বিষয়ে এমপি মহোদয়ের আন্তরিক প্রচেষ্টায় ডিগ্রি সেন্টার পেয়েছে। বর্তমান অবস্থায় কলেজের প্রায় ১৯ শত শিক্ষার্থী রয়েছে। ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা দিন-দিন বেড়ে চলছে। এমতাবস্থায় যদি একটি ৪তলা বিশিষ্ট আইসিটি ভবন ও শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব হলে তাহলে শ্রেণি কক্ষ ও আইসিটি শিক্ষায় ছাত্র-ছাত্রীরা আরো ভালো করতে পারবে। তাই স্থানীয় সংসদ সদস্য মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম, এমপি মহোদয়ের নিকট একটি ৪তলা ভবন ও ডিজিটাল ল্যাব স্থাপনের সুদিষ্টি কামনা করছি। এই বিষয়ে কয়েকজন কলেজের শিক্ষার্থীদের সাথে আলাপ কালে তারা জানান, আমাদের কলেজে শ্রেণি কক্ষের সংকট। ঠিকমত ক্লাস করতে সম্ভব হচ্ছে না। এই ছাড়াও ডিজিটাল ল্যাব না থাকায় চরম ব্যাঘাত হচ্ছে। আমরা সকলে স্থানীয় সংসদ সদস্য মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম, এমপি মহোদয়ের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হলেও চিতোষী এলাকায় অবস্থিত চিতোষী ডিগ্রি কলেজে বর্তমান সরকারের আমলে কোনো উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। তাই জরুরি ভাবে ডিজিটাল ভবন ও ডিজিটাল ল্যাব স্থাপনের জন্য এমপি মহোদয়ের নিকট হস্তক্ষেপ কামনা করেন।