মতলব ফেরির গ্যাংওয়ে জোয়ারের পানিতে নিমজ্জিত ফেরি চলাচল বন্ধ

ধনাগোদা নদীতে বৃষ্টির পানি এবং হঠাৎ করে বর্ষার পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় মতলব ফেরির দু’পাড়ের গ্যাংওয়ে পানিতে তলিয়ে গেছে। ফলে মতলবে ফেরি চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। নদীর দু’পাড়ে শত শত যানবাহন আটকা পড়ে তীব্র জানজটের সৃষ্টি হয়।

গতকাল ১০ জুন রোববার বেলা ১১টায় মতলব ফেরিঘাট এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, ঘাটের দুই পাড় তিন-চার ফুট পানির নিচে। নদীতে হঠাৎ করে বর্ষার পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় ফেরির দু’পাড়ের গ্যাংওয়ে পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় ফেরি চলাচল বন্ধ ছিল। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ফেরিঘাটের দু’পাড়ের গ্যাংওয়ে পানিতে নিমজ্জিত ছিলো।

চাঁদপুর সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের কার্যালয় ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মতলব দক্ষিণ ও মতলব উত্তর উপজেলার মধ্যবর্তী ধনাগোদা নদীতে কয়েকদিন ধরেই পানি বাড়ছে। পানি বৃদ্ধির কারণেই দু’পাড়ের গ্যাংওয়ে তলিয়ে গেছে। এদিকে দু’পাড়ে থাকা আটকেপড়া মাইক্রো, প্রাইভেট কার, অ্যাম্বুলেন্স, সিএনজি স্কুটার, অটোবাইক, মোটরসাইকেল, ট্রাকসহ অন্যান্য শতাধিক যানবাহন দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করে পার হতে না পারায় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়। উপায়ন্তর না পেয়ে এবং ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় মতলব দক্ষিণ পাড়ের যানবাহনগুলো মতলব-গৌরিপুর পেন্নাই সড়ক হয়ে গন্তব্যে যেতে দেখা যায়।

অপরদিকে উত্তর পাড়ে আটকাপড়া যানবাহনগুলো দাউদকান্দি হয়ে উল্টো গৌরিপুর-মতলব-পেন্নাই সড়ক হয়ে চলতে দেখা যায়। এদিকে ফেরি চলাচল বন্ধ থাকায় ঈদমুখো হাজার হাজার যানবাহন ও মালবাহী ট্রাক এবং যাত্রী সাধারণের চলাচলে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

মতলব ফেরিঘাটের ঠিকাদার ও মতলব পৌরসভার প্যানেল মেয়র আবুল বাশার পারভেজ মিয়াজী জানান, হঠাৎ করে নদীতে বৃষ্টি ও বর্ষার পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় দু’পাড়ের গ্যাংওয়ে তলিয়ে গেছে। ফলে বেলা ১১টা থেকে এ পর্যন্ত ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে।