বাঁশেরকেল্লার অ্যাডমিন আটক

f ঢাকা: আল কায়েদা প্রধান আইমান আল জাওয়াহিরির বাংলাদেশে জিহাদের ডাক সম্পর্কিত অডিওবার্তা প্রকাশের অভিযোগে টাঙ্গাইলের মির্জাপুরের মাঝিপাড়া এলাকা থেকে রাসেল বিন সাত্তার খান(২১) নামে এক যুবককে আটক করেছে র‌্যাব।

মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে বিশেষ অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। এসময় তার কাছ থেকে ৩টি মোবাইল, ২টি ল্যাপটপ, বিপুল পরিমাণ জিহাদি বই ও অন্যান্য সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক কর্নেল জিয়াউল আহসান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

রাসেল ফেসবুকের বিতর্কিত পেজ বাঁশেরকেল্লার অ্যাডমিন বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

কর্নেল জিয়া জানান, জাওয়াহিরির এ অডিওবার্তা বাঁশেরকেল্লাসহ বেশ কিছু ফেসবুক ও ব্লগে প্রকাশ হয়েছে। র‌্যাবের গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে বাংলাদেশে এ অডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে রাসেল বিন ছাত্তার নামে ওই যুবককে আটক করে র‌্যাবের একটি বিশেষ অভিযানিক দল।

তিনি বলেন, ‘রাসেল নিষিদ্ধ ব্লগ সাইট বাঁশেরকেল্লাসহ বেশকিছু ফেসবুক ব্লগ সাইট পরিচালনার সঙ্গে যুক্ত। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে নিষিদ্ধ এসব ব্লগ সাইটে রাসেল দেশবিরোধী ও জঙ্গিদের উসকে দেয়ার মতো বক্তব্য ও বিভিন্ন লেখা প্রকাশ করে আসছে। বাংলাদেশে জেহাদের ডাক সম্পর্কিত অডিওবার্তাও সে প্রকাশ করে ধর্মীয় উগ্রবাদিতাকে আরো উসকে দেয়ার চেষ্টা করেছিল।’

তিনি জানা, রাসেলের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি আল কায়েদা নেতা আইমন আল জাওয়াহিরির ছবি সম্বলিত একটি অডিওবার্তা অনলাইনে প্রচারিত হয়। ওই বার্তায় আল কায়েদা নেতা বাংলাদেশিদের ভারতীয় উপমহাদেশ এবং পশ্চিমের ইসলাম বিরোধী ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানান। অনলাইনে ‘সাইটইনটেলগ্রুপ’ নামক একটি ওয়েবসাইটে বার্তাটি প্রচার করা হয়।

বার্তায় বলা হয়, ‘আমার বাংলাদেশি মুসলিম ভাইয়েরা, ইসলামের বিরুদ্ধে যারা ক্রুসেড পরিচালনা করছে তাদের প্রতিরোধ করার জন্য আমি আপনাদের আহ্বান জানাচ্ছি। উপমহাদেশ এবং পশ্চিমের শীর্ষ ক্রিমিনালরা ইসলামের বিরুদ্ধে, নবীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। তারা মুসলিম উম্মার বিরুদ্ধেও ষড়যন্ত্র করছে। তারা আপনাদের অবিশ্বাসী এবং উৎপীড়ক ব্যবস্থার দাস বানাতে পারে।’

এছাড়াও ‘বাংলাদেশ আজ ষড়যন্ত্রের শিকার। ভারতীয় এজেন্ট, পাকিস্তানের দুর্নীতিগ্রস্ত সেনানায়করা এবং বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের বিশ্বাসঘাতক ক্ষমতালোভী রাজনীতিবিদরা এই ষড়যন্ত্রের সঙ্গে জড়িত’ বলেও জানান জাওয়াহিরি।

আলকায়েদার এই বার্তা নিয়ে দেশব্যাপী আলোড়ন সৃষ্টি হয়। বিষয়টি নিয়ে সরকার ও বিএনপি পরস্পরকে দোষারোপ করে।

আওয়ামী লীগ নেতারা অভিযোগ করেন, এই অডিওবার্তা প্রচারের সঙ্গে জামায়াত ও বিএনপি জড়িত। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মাহসচিব বলেন, ‘সরকার ভারতকে কাছে টানার কৌশল হিসেবে এমন বক্তব্য দিচ্ছে।

গত সোমবার প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব.) তারেক আহমেদ সিদ্দিক বলেন, ‘বাংলাদেশে জিহাদের ডাক দিয়ে আল কায়েদার অডিওবার্তা কোথায় থেকে পাঠানো হয়েছে সরকার তা চিহিৃত করেছে। ওই বার্তা কোথা থেকে ট্রান্সমিট করা হয়েছে তা পাওয়া গেছে। তবে কারা করেছে তা জানা যায়নি।’