ফাঁসির দাবিতে ফরিদগঞ্জের চান্দ্রায় হাজার হাজার ছাত্র-ছাত্রীর বিক্ষোভ মিছিল

cnewsফরিদগঞ্জ: ‘ফাঁসি চাই, ফাঁসি চাই, ইমন হত্যাকারীদের ফাঁসি চাই’। শিশু ইমন হত্যার প্রকৃত হত্যাকারীদের যেনো গ্রেফতার করা হয়। প্রকৃত হত্যাকারীরা এখনও ঘুরাফেরা করছে। এদের গ্রেফতার করতে হবে। এমন আরো অনেক শব্দ ব্যবহার করে ৫ অক্টোবর শনিবার বিক্ষোভে ফেঁটে পড়ে ফরিদগঞ্জে চান্দ্রা এলাকার স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা এবং কেজি স্কুলে পড়ুয়া হাজার হাজার ছাত্র-ছাত্রীরা। চান্দ্রা ইমাম আলী উচ্চ বিদ্যালয় এলাকা থেকে হাজার হাজার ছাত্র-ছাত্রীসহ মিছিলটি চান্দ্রা ঔষধ বাড়ি হয়ে ওয়াপদা রাস্তা ঘুরে চান্দ্রা বুলু ডাক্তার ব্রিজ (চান্দ্রা চৌরাস্তা) হয়ে চান্দ্রা নদীর পাড় সড়ক দিয়ে চান্দ্রা-ফরিদগঞ্জ সড়ক হয়ে ইমনের গ্রামের বাড়িতে গিয়ে আবার চান্দ্রা ইমাম আলী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এসে বিক্ষোভ সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। বিক্ষোভ মিছিলে অংশ নেয় চান্দ্রা ইমাম আলী উচ্চ বিদ্যালয়, চান্দ্রা ছামাদিয়া সিনিয়র মাদ্রাসা, চান্দ্রা কলেজ, ইমনের নিজ বিদ্যালয় চান্দ্রা শিশু কিশোর একাডেমী, চান্দ্রা নিউ ন্যাশান ক্যাডেট স্কুলসহ অত্র অঞ্চলের বিভিন্ন বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রী ও শিক্ষকবৃন্দ। বিক্ষোভ সমাবেশে চান্দ্রা ইমাম আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক মোঃ কামাল হোসেন বিএসসি, বিএড-এর পরিচালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাহেদুল ইসলাম। এছাড়া চান্দ্রা ইমাম আলী উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ শাহ্ মকবুল আহম্মেদ, ১নং বালিথুবা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান পাটওয়ারী, চান্দ্রা শিশু কিশোর একাডেমীর অধ্যক্ষ মোঃ হারুন শেখ ও মাসুদ মিজি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ফরিদগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নাজমুল হোসেন চৌধুরী।
উল্লেখ্য, চান্দ্রা শিশু কিশোর একাডেমী প্লে-গ্রুপের ছাত্র নাবিল রহমান ইমন ১ অক্টোবর মঙ্গলবার কে-বা কারা স্কুল থেকে আসার পথে তুলে নিয়ে যায়। পরে একটি এয়ারটেল নাম্বার থেকে ফোন করে ১০ লাখ টাকা মুক্তিপন দাবি করে। টাকা না দেয়ায় তাকে মেরে চান্দ্রা পুরাতন কাপড় পট্টি রোডে ময়লা আর্বজনার ডাস্টবিনে ফেলে গেলে শুক্রবারে তার গলিত লাশ একটি পলিথিন ব্যাগ থেকে উদ্ধার করে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত জানা যায়, ইমনের পিতার দায়ের করা মামলায় এ পর্যন্ত সন্দেহজনক কয়েকজনকে আটক করে।