ফরিদগঞ্জে প্রেমিকের হাত ধরে প্রবাসীর স্ত্রী উধাও঳ থানায় জিডি করা হয়েছে

প্রতিনিধি ঳ প্রবাসী স্বামীর সংসারে মাত্র ১০ মাস কাটিয়েই স্বর্ণালংকার নিয়ে পরকীয়া প্রেমিকের হাত ধরে স্ত্রী উধাও হওয়ার ঘটনায় তোলপাড় চলছে। এ ঘটনায় স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ ও থানায় লিখিত অভিযোগ করেছে ক্ষতিগ্রস্ত স্বামীর পরিবার। ঘটনাটি ঘটেছে চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার চর মান্দারী গ্রামের অহিদ উল্যা দেওয়ান বাড়িতে। পলাতক গৃহবধূ মরিয়ম আক্তার অনামিকা (২০) লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার মধ্য কাঞ্চনপুর গ্রামের ভূঁইয়া গাজী পাটওয়ারীর বাড়ির কুয়েত প্রবাসী নুর হোসেন রাজুর (২৫) স্ত্রী। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ঘটনার সত্যতা পেয়েছে।
মঙ্গলবার (২২ মে) দুপুরে প্রবাসী রাজুর ছোট ভাই সৌরভ হোসেন জানান, প্রায় ১০ মাস পূর্বে ৭ লক্ষ টাকা দেনমোহরে তার ভাই নুর হোসেন রাজু বিয়ে করেন মরিয়ম আক্তার অনামিকাকে। রাজু ও তার শশুর অহিদ উল্যা বর্তমানে কুয়েতে রয়েছেন। প্রায় এক মাস পূর্বে তাদের টঙ্গীস্থ বাসা থেকে ফরিদগঞ্জে বাবার বাড়িতে বেড়াতে আসেন অনামিকা। ১৭ মে রাতের আঁধারে পরকীয়া প্রেমের টানে অজ্ঞাত ব্যক্তির সঙ্গে বাবার বাড়ি থেকে পালিয়ে যান তিনি। গত ৭ দিনেও তার খোঁজ না পেয়ে বাধ্য হয়ে সৌরভ ১৬নং রূপসা (দ:) ইউনিয়ন পরিষদে লিখিত অভিযোগ ও ফরিদগঞ্জ থানায় জিডি করেছেন।
গৃহবধূর মা আরজু বেগম বলেন, মেয়ে পালিয়ে গিয়ে আমাদের ও জামাই পরিবারের মান-সম্মান কলঙ্কিত করেছে। আমরা তাকে পরিচয় দিতে চাই না। আমরাও মেয়ের সন্ধানে খোঁজ-খবর নিচ্ছি।
ফরিদগঞ্জ থানার এসআই নাজমুল হুসেন বলেন, অনামিকার পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় তার দেবর সৌরভ হোসেন ফরিদগঞ্জ থানায় জিডি করেছেন। সরেজমিন তদন্তকালে গৃহবধূর মা পরকীয়ার ঘটনায় মেয়ের পালিয়ে যাওয়ার বিষয়টি আমাদেরকে নিশ্চিত করেছেন। তবে কার সঙ্গে সে পালিয়েছে তা জানাতে পারেননি। তাকে উদ্ধারে সম্ভাব্য সকল পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে।