দেশ বাঁচাতে শেখ হাসিনাকে আবারও ক্ষমতায় আনতে হবে -ত্রাণ মন্ত্রী মায়া চৌধুরী

মতলব উত্তর প্রতিনিধি :
বঙ্গবন্ধুর ৪২ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উদযাপন উপলক্ষে মতলব উত্তর উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রস্তুতি সভায় চাঁদপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম বলেছেন, দেশকে বাঁচাতে হলে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আবারও শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় আনতে হবে। এ জন্য ভেদাভেদ ভুলে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।
আগামী ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে শুক্রবার (১১ আগস্ট) বিকালে মতলব উত্তর উপজেলার মোহনপুরস্থ নিজ বাস ভবনে উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রস্তুতি সভায় তিনি এসব কথা বলেন। সভার শুরুতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনায় এক মিনিট দাঁড়িয়ে নীরবতা পালন করা হয়।
ত্রাণ মন্ত্রী মায়া চৌধুরী আরও বলেন, আওয়ামী লীগকে হারানোর ক্ষমতা কেউ রাখে না। কারণ রাজপথে গড়ে ওঠা অনেক ত্যাগি নেতাকর্মী এই দলে রয়েছে।
নির্বাচন প্রসঙ্গে মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের দোসর আর আগুনে পুড়িয়ে মানুষ হত্যাকারী কোনও দলকে নির্বাচনে দাওয়াত দেওয়ার কোনও যৌক্তিক কারণ আমি খুঁজে পাই না। নির্বাচনে বিএনপি আসবে কি আসবে না অথবা তাদের নির্বাচনে নিয়ে আসার দায়িত্ব আওয়ামী লীগের না। আমরা বক্তব্যের মঞ্চে নেই, আমরা এখন নির্বাচনী মঞ্চে আছি।
তিনি আরও বলেন, শেখ হাসিনা ক্ষমতায় না এলে দেশে আবারও জঙ্গিবাদের উত্থান ঘটবে, দেশের প্রাকৃতিক সম্পদ লুটপাট হবে এবং দেশের অর্থনীতি ধ্বংস হয়ে যাবে। প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় যথার্থই বলেছেন, শুধু উন্নয়ন কর্মকান্ডই প্রধান নয়, এর সঙ্গে প্রয়োজন সঠিক প্রচারণা।
বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে মায়া চৌধুরী বলেন, বিএনপি’র ভেতরে যে সবাই খারাপ তা নয়, বিএনপিতে দুইটি শ্রেণি আছে। একটি শ্রেণি আছে যারা বঙ্গবন্ধুকে বঙ্গবন্ধুই বলতে চায় কিন্তু ভয়ে বলে না। আরেক শ্রেণি আছে, যারা পুনরায় ২১ আগস্ট ঘটাতে চায়, ২০১৪ সালের মতো আগুনে পুড়িয়ে এদেশের সাধারণ মানুষকে মারতে চায়।
উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট রুহুল আমিনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এমএ কুদ্দুসের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন- ছেংগারচর পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব রফিকুল আলম জজ, উপজেলা মহিলা লীগের সভানেত্রী পারভীন শরীফ, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সদস্য সচিব অ্যাড. আক্তারুজ্জামান, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী শরীফ, উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক মিনহাজ উদ্দিন খান।
উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ জাতীয় পরিষদ সদস্য একেএম রিয়াজ উদ্দিন মানিক, চাঁদপুর জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম হাওলাদার, মোহনপুর ইউপির স্বর্ণপদকপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান সামছুল হক চৌধুরী বাবুল, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোজাম্মেল হক, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব আলী গাজী, ছেংগারচর পৌর আ’লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হাজী মনির হোসেন বেপারী, সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান ঢালী, উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শাহজাহান প্রধান, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি দেওয়ান জহির, ইউপি চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন দানেশ, হাজী মোসাদ্দেক হোসেন মুরাদ, নূর মোহাম্মদ, একেএম শরীফ উল্লাহ সরকার, লোকমান আহমেদ মুন্সি, মঞ্জুর মোর্শেদ স্বপন, মোহাম্মদ নান্নু মিয়া, দেওয়ান আবুল খায়ের, উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা বোরহান উদ্দিন মিয়া, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহ্বায়ক সিরাজুল ইসলাম ডাবলু, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক তামজিদ সরকার রিয়াদ প্রমুখ।
সভায় সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত হয়, ১৫ আগস্ট প্রতিটি ইউনিয়নে যৌথ ভাবে অনুষ্ঠানের আয়োজন, পরদিন ১৬ আগস্ট উপজেলা যুবলীগ মাথাভাঙ্গা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে, ছাত্রলীগ উপজেলা পরিষদ মাঠে, স্বেচ্ছাসেবকলীগ সুজাতপুর বাজারে ও মহিলা আওয়ামীলীগ মোহনপুর আলী আহমদ মিয়া বহুমুখী মহাবিদ্যালয় মাঠে বঙ্গবন্ধুর শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা করবে।