জনতা উচ্চ বিদ্যালয়ে অভিভাবক সমাবেশ ও শিক্ষার্থীদের মাঝে পরিচয়পত্র বিতরণ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ চাঁদপুর সদর উপজেলার বাগাদী ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জনতা উচ্চ বিদ্যালয়ে অভিভাবক সমাবেশ ও শিক্ষার্থীদের মাঝে উন্নতমানের পরিচয় পত্র বিতরণ করা হয়েছে। শনিবার (২১ এপ্রিল) সকাল ১১টায় বিদ্যালয় হলরুমে অভিভাবক সমাবেশের আয়োজন করা হয়। বিদ্যালয়ের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সদস্য, পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি, বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী ও ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. মোফাজ্জল হোসাইন পাটওয়ারীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র, জাতীয় দৈনিক অনুপমা এর সম্পাদক, দৈনিক চাঁদপুরজমিন পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক মো. রোকনুজ্জামান রোকন।

প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, শহরের তুলনায় এখন গ্রামের বিদ্যালয়গুলোও মানের দিক দিয়ে পিচিয়ে নেই। কারণ আগের চাইতে বর্তমানে অভিভাবকরা অনেক সচেতন। অভিভাবকরা সন্তানদের প্রতি আরো যতœবান হবেন। ভবিষ্যতে এরাই সু-শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে জাতীয় পর্যায়ে গুরুত্বপূর্ন পদে নেতৃত্ব দিবে। আজকে এ বিদ্যালয়ের সভাপতি যে মানের পরিচয়পত্র শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দিয়েছেন, তা জেলার অন্য বিদ্যালয়গুলোতে এখনো ব্যবহার শুরু হয়নি। এ পরিচয়পত্র পরবর্তীতে রিডার মেশিনেও বিদ্যালয়ে প্রবেশ এবং বাহির হওয়ার সময় প্রদর্শন করা যাবে।

বিদ্যালয় সভাপতি মোফাজ্জল হোসাইন পাটওয়ারী বক্তব্যে অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনাদের সন্তান আমাদেরও সন্তান। তাদেরকে সুন্দর পরিবেশে পাঠদান এবং যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার জন্য আমাদের চেষ্টা অব্যাহত। অভিভাবক হিসেবে আপনারা সন্তানদের প্রতি আরো যতœবান হবেন। আর ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য যে পরিচয়পত্র দেয়া হলো, এই পরিচয়পত্রে একজন শিক্ষার্থীদের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য রয়েছে। এই পরিচয়পত্র ৬ষ্ঠ শ্রেনী থেকে ১০ম শ্রেনী পর্যন্ত কাজে লাগবে।
অভিভাবক সমাবেশ পরিচালনা করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. খোরশেদ আলম।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন পরিচালনা পর্ষদের সদস্য আব্দুল্লাহ আল মামুন, মো. বিল্লাল পাটওয়ারী, মতিউর রহমান, শহীদুল ইসলাম, দাতা সদস্য শোয়রাব হোসেন পাটওয়ারী ও বিদ্যুৎসাহী সদস্য মো. নুরে আলম খান। শিক্ষকদের মধ্যে সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. মাহবুবুর রহমান পাটওয়ারী, সিনিয়র সহকারী শিক্ষক মো. জাকির হোসেন, শামীমা আক্তার, মো. সেলিম গাজী প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।
অভিভাবক সমাবেশ পূর্বে বিদ্যালয় সভাপতি সকল শিক্ষকদের হাতে পরিচয়পত্র তুলে দেন এবং সবশেষে বিদ্যালয় শ্রেনী কক্ষে ছাত্র-ছাত্রীদের হাতে পরিচয়পত্র তুলে দেন প্রধান অতিথি, সভাপতি, পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ও শিক্ষকবৃন্দ।