চিতোষী আর এন্ড এম উচ্চ বিদ্যালয়ের নব-নির্মিত একাডেমিক ভবনের শুভ উদ্বোধন

2

শুধু ভবন করলেই হবে না, শিক্ষাক্ষেত্রে এর প্রতিফলন ঘটাতে হবে

————————- মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম এমপি

মোঃ জামাল হোসেন

আজ বুধবার বিকেলে শাহরাস্তির চিতোষী আর এন্ড এম উচ্চ বিদ্যালয়ের নব-নির্মিত একাডেমিক ভবনের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত আলোচনা সভায় বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোঃ জহিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে টেলিকনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও স্থানীয় সংসদ সদস্য মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম।

বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোঃ মাহফুজুর রহমানের উপস্থাপনায় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ দেলোয়ার হোসেন মিয়াজী, উপজেলা আওয়ামী লীগের উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির প্রধান সমন্বয়ক পৌর মেয়র আলহাজ্ব আবদুল লতিফ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ফরিদ উল্যাহ চৌধুরী, ইউপি আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আবুল হোসেন পাটোয়ারী, সম্পাদক আবদুল আজিজ মানিক প্রমুখ। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মিজানুর রহমান।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা সাব-রেজিষ্টার মোঃ রাকিবুল হাসান, চিতোষী ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ হানিফ, চিতোষী পূর্ব ইউপি চেয়ারম্যান আবু ইউসুফ পাটোয়ারী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর মোঃ আদেল, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক জেড এম আনোয়ার, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক তোফায়েল আহমেদ ইরান, পৌর আওয়ামী লীগের উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির যুগ্ম আহবায়ক আবদুল মান্নান বেপারী, রায়শ্রী দক্ষিণ ইউপি আওয়ামী লীগের সম্পাদক ডা. আবদুর রাজ্জাক, উপজেলা তাঁতী লীগের যুগ্ম আহবায়ক মাইনুদ্দিন মানিক সহ বিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষিকা, অভিভাবক, শিক্ষার্থী ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ।

প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, শুধু ভবন করলেই হবে না, শিক্ষাক্ষেত্রে এর প্রতিফলন ঘটাতে হবে। শিক্ষার্থীদের জন্য পড়ালেখার উপযুক্ত পরিবেশ তৈরী করে দেয়া হয়েছে। শিক্ষার্থীরা ভালো ফলাফল অর্জণের মাধ্যমে এর সফলতা তুলে ধরলে স্বার্থকতা পাওয়া যাবে। প্রতিটি অঞ্চলে শিক্ষার হার দিন দিন বেড়েই চলছে। সরকার শিক্ষাক্ষেত্রে যে পরিবর্তণ এনেছে কিছু সময়ের মধ্যে আর অশিক্ষিত লোক খুঁজে পাওয়া যাবে না। দেশ উন্নতির শিখরে দাঁড়িয়ে। উন্নত দেশের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে হলে শিক্ষার প্রতি কঠোর জোর দিতে হবে। এক্ষেত্রে অভিভাবকদের তাদের সন্তানদের প্রতি দৃষ্টি রাখতে হবে।