চাঁন্দ্রায় বাকপ্রতিবন্ধীকে গাছের সাথে বেঁধে পিটিয়ে আহত ॥ থানায় অভিযোগ

শাহরিয়ার খাঁন কৌশিক ॥ চাঁদপুর সদর উপজেলার ১২ নং চাঁন্দ্রা ইউনিয়নে ছলেমান বেপারী(৫০) নামে এক বাকপ্রতিবন্ধীকে গাছের সাথে রশি দিয়ে বেঁধে পিটিয়ে গুরুতর আহত করার খবর পাওয়া গেছে। শুক্রবার সকাল ১১ টায় চাঁন্দ্রা ইউনিয়নে মধ্য মদনা গ্রামে বেপারী বাড়িতে সম্পত্তি থেকে উচ্ছেদ করতে এই হামলার ঘটনা ঘটায় পতিপক্ষরা।এই ঘটনায় আহত বাকপ্রতিবন্ধীর ছেলে হাবিব বাদী হয়ে ৩ জনকে আসামী করে চাঁদপুর মডেল থানায় একটি অভিযোগ করে।

জানা যায়, মধ্য মদনা বেপারী বাড়ির মৃত ওহাব বেপারীর পুত্র বাকপ্রতিবন্ধী ছলেমানকে তার বড় ভাই মুজা(৫৫) ও ভাতিজা জুনায়েত(২৫)কিছুদিন পর পর সম্পত্তি আত্মসাাৎ করতে ব্যাপক নির্যাতন করতো। তাকে বাড়ি থেকে চলে যাওয়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করতো। সম্পত্তি ছেড়ে না যাওয়ার কারনে ঘটনারদিন ১১ টায় বাকপ্রতিবন্ধীর বড় ভাই মুজা ,ভাতিজা জুনায়েত ও ভাবি তাহেরা বেগম তাকে মারধর করতে শুরু করে। পরে তারা বাকপ্রতিবন্ধীকে গাছের সাথে বেঁধে লাঠি দিয়ে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাত করতে শুরু করে। তার বুকে,পিঠে ও গলায় রক্ত জমাট খেয়ে আঘাত প্রাপ্ত হওয়ায় ডাক চিৎকারে বাড়ির আশে পাশের মানুষ এসে তাকে উদ্ধার করে দূত্ত চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করায়।
বাকপ্রতিবন্ধী ছলেমানকে মারধর করে আহত করার ঘটনায় এলাকার মানুষ ক্ষীপ্ত হয়ে এর প্রতিবাধ করে। বাকপ্রতিবন্ধীর ভাতিজা জুনায়েত এলাকায় মাদক বিক্রি করে সিন্ডিকেট তৈরি করায় ও তার এক দল সন্ত্রাসী গ্রুপ থাকায় তার বিরুদ্ধে কেউ ভয়ে কথা বলতে সাহস পায়না বলে এলাকার মানুষ জানিয়েছেন। এই ঘটনায় হামলকারী ও দখলবাজের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তি দাবি করে বাকপ্রতিবন্ধীর পরিবার।