চাঁদপুরে ছয় বছরের শিশুকে বাগানে নিয়ে বলাৎকার ॥ লম্পট পলাতক

স্টাফ রিপোর্টার: চাঁদপুরে ছয় বছরের ফরাদ নামে এক শিশুকে প্রলভন দিয়ে বাগানে নিয়ে বলাৎকার করেছে এক লম্পট। ঘটনার পরেই লম্পট ফরিদ(২৪) এলাকা থেকে পালিয়ে গেছে। সোমবার সকাল ১১ টায় সদর উপজেলা ১০ নং লক্ষীপুর মডেল ইউনিয়নের রামদাসদী আশ্রয়নপ্রকল্পের পাশে একটি বাগানে এই শিশু বলাৎকারের ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় বিক্ষুব্ধ জনতা লম্পট ফরিদের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ করে। আহত শিশু ফরাদকে ঘটনার পরেই চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে শিশু বিভাগে ভর্তি করানো হয়েছে। শিশু ফরাদ রামদাসদী আশ্রয়নপ্রকল্পের ১৮৬ নং ঘরের শাফী বেপাারীর ছেলে।
শিশুর মা ফরিদা বেগম জানায়, সোমবার সকাল ১১ টায় ফরহাদ নদীর পাড়ে খেলতে গেলে রামদাসদী আশ্রয়নপ্রকল্পের পাশে কলমত্বর খাঁনের ছেলে ফরিদ খাঁন তাকে প্রলভন দেখিয়ে আম দেওয়ার কথা বলে বাগানে নিয়ে যায়। সেখানে শিশু ফরহাদকে লম্পট ফরিদ জোড় পূর্বক বলাৎকার  করে ছেরে দেয়। ফরহাদের পায়খানা রাস্তা দিয়ে অজর ধারায় রক্ত বের হতে দেখে এলাকার সকল লোকজনদের ঘটনাটি জানিয়ে দূত তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসি। ঘটনার পরেই লম্পট ফরিদ এলাকা থেকে পালিয়ে গেছে। আমরা প্রশাসনের কাছে এই লম্পট ফরিদের বিচার দাবি করি। সে এর পূর্বে এই ধরনের আরো কয়েকটি ঘটনা ঘটিয়েছে। তার খালাতো ভাই ফারুকের দাপট খাটিয়ে এলাকায় এই অনৈতিক কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।
এলাকার বেশ কয়েকজন মহিলা ও পুরুষ জানায়, রামদাসদী আশ্রয়নপ্রকল্পের পাশে সরকারি জায়গা দখল করে ফরিদের বাবা কলমত্বর খাঁন বাড়ি করেছে। তার পর থেকে বাব ও ছেলে সমানতালে রামদাসদী আশ্রয়নপ্রকল্পে অনেক মেয়েকে নির্যাতন করেছে। তার বেশ কয়েকবার আর্থিক জরিমানা দিয়েও ক্ষন্ত থাকেনি। একের পর এক নারী ধর্ষন ও বলধকারের ঘটনা ঘটিয়ে যাচ্ছে। অবশেষে লম্পট ফরিদ রামদাসদী আশ্রয়নপ্রকল্পের পাশে ইন্ডেগো বাগানে শিশু ফরহাদকে নিয়ে জোড় পূর্বক বলাৎকার করেছে। আমরা তাদের এই এলাকা থেকে উৎখাত করতে চাই। তারা বাপ ছেলে রামদাসদী আশ্রয়নপ্রকল্পের পরিবেশ নষ্ট করে দিচ্ছে।