আজ বৃহস্পতিবার, জুন ২৯, ২০১৭ ইং, ১৫ আষাঢ় ১৪২৪

চাঁদপুরে একগ্রাম নিয়ে একটি বাড়ি

Friday, December 9, 2016

chandpur-picমিজান লিটন ॥
পুরো একটি গ্রাম নিয়ে একটি বাড়ি, একটি ওয়ার্ড একই ধর্মের প্রায় ৬ হাজার লোকের বসবাস। বাড়িতে ভোটার সংখ্যা ২ হাজার ২’শ। সবাই সনাতন ধর্মের অনুসারী। বাসিন্দারা পেশায় জেলে ও মৎস্য ব্যবসায়ী। বিয়ে-শাদি বেশির ভাগই হয় নিজেদের মধ্যে।
আয়তনে ওই গ্রামের দৈর্ঘ্য প্রায় ২ কিলোমিটার। প্রস্থ আধা কিলোমিটার। এ বাড়ীতে রয়েছে ১’শ ১টি নলকূপ, ৮টি মন্দির, কাপড়ের দোকান, স্বর্ণের দোকান, দু’টি সেলুন, ফার্নিচারের দোকান, কয়েকটি মোবাইল ক্রয়-বিক্রয়ের দোকান। এসব দোকানগুলো তাদের ঘরেরই একটি অংশ।
বিরল এ বাড়িটি চাঁদপুর জেলার মতলব দক্ষিণ উপজেলার নায়েরগাঁও দক্ষিণ ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের মেহরন দালাল বাড়ি নামে সবার কাছে পরিচিত। এ বাড়িতে প্রতিদিন অনেক দর্শনার্থীদের আগমন ঘটে।
বাড়িটি নারায়নপুর ইউনিয়ন পরিষদ থেকে মাত্র আড়াই কিলোমিটার দূরে এ অবহেলিত গ্রামটি অবস্থিত। ওই বাড়িতে যাওয়ার জন্য পূর্বে নৌকা ছিলো একমাত্র বাহন।
তবে এখন নায়েরগাঁও বাজার থেকে পায়ে হেঁটে, রিক্সা কিংবা অটো বাইকেও যাওয়া যায়। বাড়িতে প্রবেশের জন্য পূর্ব ও উত্তর দিক দিয়ে দু’টি মাটির রাস্তা রয়েছে। বাড়িটিতে গিয়ে কথা হয় বাসিন্দাদের সাথে, অবহেলিত হওয়ার বর্ণনা দেন প্রতিবেদকের কাছে।
স্বাস্থ্য সম্মত টয়লেটের রয়েছে চরম অভাব। সেখানে রয়েছে ১টি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ১টি নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়। প্রায় ৬’শ শিশু চারভাগের একভাগও স্কুলে যায় না।
ছেলেমেয়েদের পড়াশোনার জন্য রয়েছে একটি মাত্র নি¤œ মাধ্যমিক বিদ্যালয়। উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়ার জন্য কয়েক মাইল হেঁটে যেতে হয় নারায়নপুর পপুলার উচ্চ বিদ্যালয়ে। মেহেরন দালাল বাড়ীর নামকরণ কিভাবে হয়েছে তা জানে না সেখানকার ষাটোর্ধ্ব বাসিন্দারা।
তবে জগন্নাথ মন্দিরের পূজারী বয়োঃবৃদ্ধ সচিন্দ্র চক্রবর্তী জানান, ‘মেহেরন মূলতঃ মহারণ ছিল। মহা অর্থ বড় আর রণ অর্থ যুদ্ধ। অর্থাৎ বড় যুদ্ধ। কোন এক সময়ে এখানে জাগতিক বড়যুদ্ধ হয়। তখন এর নাম হয় মহারণ। পরে আস্তে আস্তে লোকজন মহারণকে মেহেরন নামে ডাকতে শুরু করে। এখানে জমিদাররা বসবাস করতো। এ এলাকায় কেউ জুতা পায়ে দিয়ে হাটতো না।
নামকরণ সম্পর্কে জমিদারদের বংশধর সমীর দাস বলেন, দেড়’শ বছর আগে কালাচান দাস, গিরিশ চন্দ্র দাস ও তার আত্মীয়-স্বজন পশ্চিম বঙ্গ থেকে এখানে আসেন। এখানে তারা দীর্ঘদিন ব্যবসা বাণিজ্য করেন। এখন তাদের কেউ নেই। কেউ ভারতে চলে গেছেন, আবার কেউ অন্যত্র চলে গেছেন। এ বাড়িতে জেলেরা স্থায়ীভাবে বসবাস করছে জমিদারদের বৃটিশরা উপাধি দেয় দালাল বলে। এ জন্য এ বাড়ির নাম মেহরন দালাল বাড়ি। জমিদারদের দো’তলা দুটি ভবন এখনও কালের সাক্ষী হয়ে দাড়িয়ে আছে।

No comments চাঁদপুরে একগ্রাম নিয়ে একটি বাড়ি

মন্তব্য করুণ

Chandpur News On Facebook
দিন পঞ্জিকা
June 2017
S M T W T F S
« May    
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
252627282930  
বিশেষ ঘোষণা

চাঁদপুর জেলার ইতিহাস-ঐতিহ্য,জ্ঞানী ব্যাক্তিত্ব,সাহিত্য নিয়ে আপনার মুল্যবান লেখা জমা দিয়ে আমাদের জেলার ইতিহাস-ঐতিহ্যকে সমৃদ্ধ করে তুলুন ।আপনাদের মূল্যবান লেখা দিয়ে আমরা গড়ে তুলব আমাদের প্রিয় চাঁদপুরকে নিয়ে একটি ব্লগ ।আপনার মূল্যবান লেখাটি আমাদের ই-মেইল করুন,নিম্নোক্ত ঠিকানায় ।
E-mail: chandpurnews99@gmail.com