চাঁদপুরের আইনজীবী আনোয়ার গাজী আবারও গ্রেফতার ॥ জেল হাজতে প্রেরণ

16_8793

শহর প্রতিনিধি-
চাঁদপুরের আইনজীবী আনোয়ার গাজীকে আটক করেছে চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশ। গতকাল রোববার দুপুর দেড়টায় শহরের চেয়ারম্যান ঘাটস্থ চেম্বার থেকে ওসি তদন্ত শাহ্ আলম, এস.আই শামীম, এস.আই সাঈদ সঙ্গীয় পুলিশ ফোর্স তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। পুলিশ জানায়, তার বিরুদ্ধে এবার চাঁদপুর জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট অসিমকে প্রকাশ্যে হুমকি, ভয়ভীতি প্রদর্শন, সরকারি কর্মকর্তাকে আক্রমন, মামলার নথি ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের কর্মচারি সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে চাঁদপুর মডেল থানায় মামলা দায়ের করে। মামলা নং- জি.আর- ১৫, তারিখ- ১২/০৯/২০১৩। মামলায় আনোয়ার গাজীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করা হয়।
গতকাল রোববার দুপুরে তাকে তার চেম্বার থেকে পুলিশ আটক করতে সক্ষম হয়। পরে আনোয়ার গাজীকে আদালতে হাজির করা হলে আদালত তাকে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেয়।
জানা যায়, আটক আইনজীবী আনোয়ার গাজী নানা মিথ্যা প্রলোভন এবং প্রতারণা করে নিরীহ বিচার প্রার্থীদের মামলা আয়ত্ত্বে নিয়ে তাদেরকে আর্থিকভাবে সর্বশান্ত করে আসছে। তার উচ্ছৃঙ্খল আচরণে সবাই ক্ষুব্ধ। এমনকি সহপাঠী আইনজীবীদের সাথে দুর্ব্যবহার, অপমান, অপদস্ত, মক্কেলদের মারধর করা, বিভিন্ন কৌশলে চাঁদাবাজি এবং সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের ভূরিভুরি অভিযোগ রয়েছে। এর আগেও আরেকটি মামলায় আনোয়ার গাজীকে আটক করা হয়েছিল। সে সময় দীর্ঘদিন জেলে ছিল। তারপরও সে সংশোধন হয়নি। উগ্র মেজাজ নিয়ে আইন পেশা চালিয়ে আসছে। তার আটকের খবরে শুধু আইনজীবীগণ নয়, চাঁদপুরের বিভিন্ন মহল সন্তোষ প্রকাশ করে। আদালতের কয়েকজন আইনজীবী জানায়, ১১ সেপ্টেম্বর বিকেল ৪টায় আদালত চলাকালীন অবস্থায় জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট অসিমকে মামলা জনিত ঘটনাকে কেন্দ্র করে হুমকি ধমকি দেয় ও মামলার নথি ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা চালায়। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে আদালতের কর্মচারী সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে ও জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট অসিম সাক্ষী হয়ে থানায় মামলা করে। ঘটনার পর থেকে বেশ কয়েকদিন ঢাকায় গা ডাকা দিয়ে থাকে। অবশেষে হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়েছে বলে চাউর উঠিয়ে দিয়ে পুনরায় চাঁদপুরে অবস্থান করছিল। হাইকোর্ট থেকে জামিন হয়েছে বলে সে বিভিন্ন স্তরে বলতে থাকে। মূল ঘটনা উদঘাটন হলে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করে।