কবরে থেকে বের হচ্ছে ধোঁয়া : এলাকায় চাঞ্চল্য ।

koborযশোর শহরের ঘোপ সেন্ট্রাল রোডের কবরস্থানের একটি কবর থেকে ধোঁয়া উড়তে দেখা যাওয়ার কৌতুহল সৃষ্টি হয়েছে। গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির সময় ভেজা কবর থেকে ধোঁয়া উড়ার ঘটনাটি অনেককে ভাবিয়ে তুলেছে।

রোববার সকাল থেকে যশোর শহরে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির মধ্যেই শহরের ঘোপ সেন্ট্রাল রোডের কবর থেকে ধোঁয়া বের হতে দেখে উৎসুক জনতা ভিড় করে।

বিকেলে বৃষ্টির মধ্যে কবরস্থানে গিয়ে দেখা গেছে, কাদা মাটির মধ্যে ধোঁয়া উড়ছে। উড়ে যাওয়া ধোঁয়া গ্যাস কিনা জানার জন্য অনেকে ম্যাচের কাঠি জ্বালিয়ে আগুন ধরানোর চেষ্টা করছেন।

স্থানীয়রা জানান, বছর দুই আগের ওই কবর থেকে প্রথমে এক ব্যক্তি ধোঁয়া উড়তে দেখেন। তার কথা প্রথমে কেউ বিশ্বাস না করলেও একে একে লোকজন কবরস্থানে যান। সেখানে গিয়ে বিষয়টির সত্যতা জানতে পারেন।

কবরস্থানের পাশের মুদি দোকানি ইউনুস আলী বলেন, যারা প্রথমে ধোঁয়া দেখে তার দোকানের সামনে এসে বলছিলেন, তাদের কথা বিশ্বাস হয়নি। পরে ভয়ে ভয়ে কবরস্থানে গিয়ে তিনিও ধোঁয়া দেখে এসেছেন।

রোববার বিকেলে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা গেছে কবর স্থানের পাশেই রয়েছে একটি বৈদ্যুতিক খাম্বা। এ খাম্বার গায়ের ক্যাবল দিয়ে মাটির সাথে আর্থিং তৈরি করা রয়েছে। এতে বিদ্যুতায়িত হয়ে এমন ধোঁয়ার সৃষ্টি হয়েছে কিনা সেটাও নিশ্চিত নয়। এ দিকে সাধারণ মানুষ ঘটনাকে অন্যভাবে দেখছেন। তারা মনে করছেন কবরে আজাবের ফলে ধোঁয়া বের হচ্ছে। তাই এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে কবরস্থানে দোয়া পড়ানো হয়েছে। পুরো ঘটনা নিয়ে ধুম্রজালের সৃষ্টি হয়েছে।

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্ডাস্ট্রিয়াল অ্যান্ড প্রডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. এএসএম মুজাহিদুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, অনেক সময় পলিথিন দিয়ে মুড়িয়ে লাশ দাফন করা হয়। তখন লাশ পচে এ ধরনের গ্যাস তৈরি হয়। যা ফসিলের (কঙ্কাল) ভেতর থেকে যায়। বৃষ্টির কারণে ওই গ্যাস বের হতে পারে।