এসবি খাল পুনরুদ্ধার সংক্রান্ত জেলা প্রশাসনের মতবিনিময় সভা


স্টাফ রিপোর্টার ॥ চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক আবদুস সবুর মন্ডল বলেন, চাঁদপুরের অর্জিত ইজ্জত যাতে ভুলন্ঠিত না হয়। সে জন্য আমাদের সকলকে কাজ করতে হবে। এ জন্য শুধু জেলা প্রশাসকের দিকে তাকিয়ে থাকলে চলবে না। সারাদেশের মধ্যে চাঁদপুর হচ্ছে একটি ব্র্যান্ডিং জেলা। কাজেই চাঁদপুরের উন্নয়নে আমাদের সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে। ইতিমধ্যে আমরা চাঁদপুরে হারানো সৌন্দর্য ফিরিয়ে আনতে চাঁদপুরের ঐতিহ্যবাহী এসবি খাল পুনরুদ্ধারের কাজ হাতে নিয়েছি। এজন্য সকলের আন্তরিক সহযোগিতা প্রয়োজন। কারন এই কাজটি করতে গিয়ে আমরা হয়তো অনেক প্রতিকুল পরিস্থিতির মধ্যে পড়তে পারি। কিন্তু যতই প্রতিবন্ধকতা আসুক না কেন চাঁদপুরবাসীর স্বার্থে আমাদেরকে এই খাল পুনরুদ্ধার করতে হবে। এ সময় তিনি আরো বলেন, চাঁদপুরকে ভিক্ষুক মুক্ত করতে আমরা ইতিমধ্যে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি। এজন্য যার যা বক্তব্য আছে তা আমাদের সামনে তুলে ধরতে পারেন। এছাড়াও ইলিশ রক্ষায় আমাদের যে ভূমিকা তা এখন সকলের কাছেই প্রশংসনীয়। তারপরও কিছু জেলে নদীতে নামছে আমরা তাদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে রয়েছি।তিনি গতকাল সকালে
চাঁদপুর শহরের এসবি খাল পুনরুদ্ধার সংক্রান্ত এক মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্য এ কথাগুলো বলেন।
সভায় আরো বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ¦ ওচমান গণি পাটওয়ারী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রাজস্ব মোঃ মাসুদ হোসেন, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আলহা¦জ আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল ,স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা ডা. সৈয়দা বদরুন নাহার চৌধুরী,চাঁদপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র ছিদ্দিকুর রহমান,জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাড. জহিরুল ইসলাম,চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শাহ মোহাম্মদ মাকসুল আলম,বিএম হান্নান,সাবেক সাধারন সম্পাদক রহিম বাদশা, সোহেল রুশদী,বর্তমান সাধারন সম্পাদক জিএম শাহীন, সাংবাদিক ফারুক আহমেদ প্রমুখ। চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি রোটারিয়ান কাজী শাহাদাত,বর্তমান সভাপতি শরিফ চৌধুরীসহ প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ,পেশাজীবী ব্যক্তিবর্গ।
সভার শুরুতে সিএস ম্যাপে চাঁদপুর শহরের এসবি খালের অবস্থানের চিত্র তুলে ধরেন চাঁদপুর সদর এসিল্যান্ড অভিষেক দাশ।